মেইন ম্যেনু

পেটের এই জায়গায় ১০ সেকেন্ড ম্যাসাজ, ফলাফল দেখে ডাক্তারও চমকে উঠবে…

পেট পরিষ্কারের প্রাকৃতিক বা সহজ উপায় কি নেই? আছে, এবং সেই উপায় বাতলে দিচ্ছেন অ্যাকুপ্রেশার বিশেষজ্ঞ ডাক্তার মাইকেল রিড গাশ। কী সেই উপায়?

কথায় বলে, পেট ভাল যার সব ভাল তার। কিন্তু দুর্ভাগ্যের বিষয় এটাই যে, অল্পবিস্তর পেটের সমস্যায় ভোগেন না এমন বাঙালি খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। গ্যাস, অম্বল, বুক জ্বালায় ভোগা এবং তা থেকে মুক্তির আশায় অ্যান্টাসিড সেবন— অধিকাংশ বাঙালিরই নিত্যদিনের কাজ। আর পেটের এইসব সমস্যার অনেকটাই ঘটে থাকে কোষ্ঠবদ্ধতার কারণে। পেট যদি ঠিকঠাক বর্জ্য-মুক্ত না হয়, তাহলে পেটের এইসব খুচরো সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়াও কঠিন। পেট সাফ করার জন্য অনেকেই রোজ ইসবগুল বা অন্য কোনও ওষুধ সেবন করে থাকেন।

কিন্তু ডাক্তারদের মতে, এই ধরনের ওষুধে অভ্যস্ত হয়ে পড়লে ক্ষতি হয় শরীরের। তাহলে পেট পরিষ্কারের প্রাকৃতিক বা সহজ উপায় কি নেই? আছে, এবং সেই উপায় বাতলে দিচ্ছেন অ্যাকুপ্রেশার বিশেষজ্ঞ ডাক্তার মাইকেল রিড গাশ। কী সেই উপায়?

ডাক্তার গাশ-এর মতে, পেটের একটি বিশেষ অ্যাকুপ্রেশার পয়েন্টে যদি হালকা ম্যাসাজ করা যায় তাহলেই ঘটবে কোষ্ঠমুক্তি। কীভাবে করতে হবে সেই ম্যাসাজ? ডাক্তার গাশের নির্দেশ এরকম—

১. প্রথমে পেটের সেই বিশেষ প্রেসার পয়েন্টটিকে চিহ্নিত করুন। নাভির নীচে তিনটি আঙুল রাখুন। সেই তিনটি আঙুলের ঠিক নীচেই রয়েছে সেই বিশেষ প্রেসার পয়েন্ট।

২. এবার গভীরভাবে শ্বাস গ্রহণ করুন আর হাতের তিন আঙুল দিয়ে আলতোভাবে চাপ দিন ওই জায়গায়। তারপর শ্বাস ছাড়তে ছাড়তে চাপ তুলে নিন। আবার শ্বাস গ্রহণ করুন এবং চাপ দিন। এইভাবে ১০ সেকেন্ড থেকে মিনিট তিনেক ম্যাসাজ করার পরেই টয়লেটে যাওয়ার প্রয়োজন বোধ করবেন। কাজেই এই কৌশল প্রয়োগের আগে কাছাকাছি টয়লেট থাকাটা জরুরি।

ডাক্তার গাশ-এর মতে, নাভির তিন আঙুল নীচেই রয়েছে ‘সি অফ এনার্জি’ নামের প্রেশার পয়েন্ট। এই জায়গায় চাপ পড়লেই পৌষ্টিক নালীতে বর্জ্য পদার্থ সামনের দিকে এগোতে শুরু করে, এবং টয়লেটে যাওয়ার প্রয়োজন বোধ হয়। পরিণামে শরীরও বর্জ্য-মুক্ত হতে পারে।






মন্তব্য চালু নেই