মেইন ম্যেনু

পেন্সিলের ইরেজারের অন্যরকম কিছু ব্যবহার

একটা সময় পেন্সিল নিয়ে কত আগ্রহই না ছিল আমাদের। কার পেন্সিলের রঙ বেশি ভালো দেখতে, কার পেন্সিলের পেছনের ইরেজারটা সবচাইতে বড়, মোট কতটা পেন্সিল আছে একেকজনের দখলে- এ নিয়ে প্রতিযোগিতা তো লেগে থাকতোই। তবে স্কুলের গন্ডী পেরোবার অনেক আগেই পেন্সিল জিনিসটা একটু দূরের হয়ে গিয়েছে সবার কাছে। আর এখন? কলমকে পাশে রেখে পেন্সিলের দিকে খুব দরকার না পড়লে ফিরেই তাকানো হয়না। মাঝে মাঝে খানিকটা কষ্টও কাজ করে পেন্সিলকে নিয়ে। আহা! এখনো যদি লেখা যেত পেন্সিলে আর লেখাগুলো মুছে দেওয়া যেত পেছনের মুছনী দিয়ে! তবে চাইলেও এমনটা না হলেও পেন্সিলের এই মুছনীকে যেকোন সময় কয়েকটি নতুন উপায়ে ব্যবহার করতে পারেন আপনি। জানতে চান কী করে? চলুন জেনে নিই।

১. মুদ্রাকে চকমকে করতে

সংগ্রহে একটা দারুন মুদ্রা এসেছে অথচ সেটাকে ঠিক করে দেখতে পারছেন না। একটু যেন ময়লাটে আর অনুজ্জ্বল হয়ে পড়েছে সেটা। কি ভাবছেন? পানি ব্যবহার করবেন? একদমই না! বরং তার আগে ব্যবহার করুন আপনার সেই ফেলে আসা পেন্সিলের ইরেজার। দেখবেন কেমন চকমকে হয়ে গিয়েছে পুরোন মুদ্রাটি। তবে দূর্লভ কিছুর ক্ষেত্রে ঝুঁকি না নেওয়াই ভালো।

২. দাগ দূর করতে

ঘরের ছবির ফ্রেমটাকে অনেক দিন ধরে ঝুলে থাকার ফলাফলস্বরুপ কালচে দাগ পড়ে গিয়েছে? কিংবা নতুন জুতোর হিল দাগ ফেলে দিয়েছে ঘরের মেঝেতে? খুব সহজেই এসব দাগকে পরিষ্কার করে ফেলতে পারেন আপনি পেন্সিলের মুছনী ব্যবহার করে। শুধু তাই নয়, ঘরের দেয়ালে বাচ্চাদের করা ক্রেয়নের এলোমেলো আঁকাআঁকিকেও মুছে ফেলতে সাহায্য করবে আপনাকে পেন্সিলের ইরেজার। খালি একটু ঘষে নিন আর দেখুন কি হয়!

৩. পিন গুছিয়ে রাখতে

প্রায়ই পিন আর ব্যবহারের সুঁই হারিয়ে ফেলেন আপনি? কোথায় রাখলে সুবিধাজনক আর নিরাপদ হবেনা সেটাও ভেবে পাচ্ছেননা? তাহলে আপনার জন্যে এ দুটো জিনিস ঠিকঠাকভাবে সাঁজিয়ে রাখার খুবই যুত্সই একটা স্থান হতে পারে পেন্সিলের ইরেজার। ঠিকঠাক এঁটে থাকবে, কোথাও খোঁচা লাগবেনা এবং মনেও রাখতে পারবেন আপনি ব্যাপারটাকে সহজেই।

৪. জিপার খুলতে

ব্যাগ, প্যান্ট বা যেকোন কিছুর জিপার আটকে গিয়ে রাস্তা-ঘাটে সমস্যায় পড়েননি এমন খুব কম মানুষই আছেন। কি করেন আপনি এমন অবস্থায়? চেইন ধরে টানাটানি, ঠিক করার ব্যর্থ চেষ্টা? তবে এসবকিছু ছেড়ে একটা পেন্সিলের ইরেজার একটুখানি ঘষে দিন জিপারের দাঁতগুলোর সাথে। সাথে সাথে দেখুন ম্যজিকের মতন ঠিক হয়ে গিয়েছে আপনার জিপার।






মন্তব্য চালু নেই