মেইন ম্যেনু

প্যারাসুটে ঘুরে আসা যাবে মহাকাশ

মহাকাশ মানেই মানুষের দৃষ্টি সীমানার বাইরে নতুন কোন জগত। যেখানে যেতে রকেট বা মহাকাশযান ছাড়া উপায় নেই। চীনের মহাকাশ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান জেএইচওয়াই স্পেস টেকনোলজী কোম্পানি লিমিটেড নতনু একটি প্যারাসুট উদ্ভাবন করেছেন যা দিয়ে কোন যান ছাড়াই ঘুরে আসা যাবে মহাকাশে।

বেইজিং ভিত্তিক চীনের প্রথম স্পেস প্যারাসুট নির্মাতা প্রতিষ্ঠান প্যারাসুটটি স্পেস ভিশনকে দিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা করাচ্ছেন। এই প্যারাসুট দিয়ে স্ট্রাটোস্ফিয়ার পর্যন্ত যাওয়া যাবে। স্ট্র্যাটোস্ফিয়ার অঞ্চল ভূপৃষ্ঠ থেকে ১২ কিলোমিটার (সাড়ে সাত মাইল; ৩৯,০০০ ফুট) ওপর থেকে শুরু হয়ে পর্যন্ত ৫০ থেকে ৫৫ কিলোমিটার (৩১-৩৪ মাইল; ১৬০,০০০- ১৮০,০০০ ফুট) পর্যন্ত বিস্তৃত।

এই স্তরের নিচে ট্রপোস্ফিয়ার এবং ওপরে মেজোস্ফিয়ার স্তর রয়েছে। স্ট্র্যাটোস্ফিয়ারে শীর্ষে বায়ুমণ্ডলে চাপ সমুদ্রপৃষ্ঠের এক হাজার ভাগের এক ভাগ। ওজোন স্তর দ্বারা অতিবেগুনি রশ্মির বিকিরণ শোষণ বৃদ্ধির কারণে উচ্চতার সঙ্গে সঙ্গে এই স্তরের তাপমাত্রাও বাড়ে।

পুরো ভ্রমণটি সফলভাবে সম্পন্ন করতে প্যারাসুটে থাকবে রাডার, ভূমি থেকে যোগাযোগ ব্যবস্থা ও ছবি স্থানান্তরের সুবিধা। চাইলেই এ প্যারাসুটে চড়া যাবে না। তার আগে নিতে হবে এটি চালনার ওপর প্রশিক্ষণ। স্পেস ভিশন আগামী কয়েক মাসে উপকরণ পরীক্ষা ও স্বেচ্ছাসেবকদের প্রশিক্ষণ দেবে। একজন উদ্যোক্তা, প্যারাসুট প্রশিক্ষক এবং একজন বৈমানিক প্রকৌশলী প্রথমবার এ প্যারাসুটে ভ্রমণ করবেন।

রকেট বা মহাকাশযানে চড়তে না হলেও এই প্যারাসুটে মহাকাশ ঘুরে আসতেও গুণতে হবে বেশ বড় অংকের মার্কিন ডলার। খরচ হবে ৭৭ হাজার মার্কিন ডলার। ভ্যাট ও ট্যাক্স ছাড়া বাংলাদেশি টাকায় ৬১ লাখ ৬০ হাজার টাকা।






মন্তব্য চালু নেই