মেইন ম্যেনু

প্রকাশিত হল পর্ণ স্টারদের শীর্ষ তালিকা, ‘সানি লিওনকে’ হারিয়ে দিল ‘মিয়া খলিফা’

ইন্টারনেটে খোঁজার প্রতিযোগিতায় সানি লিওনকেও এবছর হারিয়ে দিয়েছেন মিয়া খলিফা৷ গতবছর আবার তাবড় রাজনীতিবিদদের প্রতিযোগিতায় পিছনে ফেলে শীর্ষে ছিলেন সানি লিওনই৷ এদেশে যে তাঁদের অহরহ খোঁজ তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই৷

কিন্তু তাঁদের বেশি দেখেন কোন দেশের অধিবাসীরা৷ পর্নহাবের সাম্প্রতিক রিপোর্ট জানাচ্ছে ইউকে ও ইউএস এ ব্যাপারে সবার থেকে এগিয়ে৷

প্রতিবছরের মতো এবারও পর্নহাবের বাৎসরিক রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে৷ আর তাতে তৃতীয় স্থান পেয়েছে ভারত৷ রিপোর্ট অনুযায়ী, প্রতি সেকেন্ডে প্রায় ৭৫ জিবি পর্ন দেখে এ গ্রহের মানুষ৷

বছরে হিসেব ধরলে যা দাঁড়ায় ৪.৩ মিলিয়ন ঘণ্টা৷ গড় হিসেব ধরলে গ্রহের প্রতিটি মানুষ প্রায় ১২ টি করে পর্ন ভিডিও দেখেন৷ অবশ্য সব মানুষ যে দেখেন তা তো নন৷

পর্নহাবের সমীক্ষায় প্রথম ২০টি দেশের হিসেবে ইউকে ও ইউএসের পরই আছে ভারত৷ অর্থাৎ অন্য কিছুতে না হলেও এখানে দেশের ব্রোঞ্জ মেডেল৷ কানাডাকেও এ ব্যাপারে হারিয়ে দিয়েছে ভারত৷

প্রসঙ্গত সানি লিওন কানাডা থেকে এদেশে আসার পর, এদেশে পর্ন দেখায় কানাডাকে ছাপিয়ে গিয়েছে, যদিও সানি এখন আর পর্ন ছবিতে অভিনয় করেন না৷

বিশ্বে ২০১৫-র টপ পর্নস্টারদের মধ্যে প্রথমেই আছেন কিম কারদেশিয়ান৷ দ্বিতীয় স্থানেই আছেন মিয়া খালিফা৷ সানি নেমে এসেছেন একটু নীচে৷ তাঁর স্থান চতুর্থ৷

তবে এদেশে সবথেকে বেশী খোঁজা প্রথম তিনজনের মধ্যেই আছেন সানি৷ যে বছর সরকার টিন পর্ন নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, সেবছরই পর্ন দেখায় দেশের তৃতীয় স্থান৷

সমস্ত নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও দেশের প্রায় ১.৫ লাখ মানুষ যৌনতা সম্পর্কিত ওয়েবসাইট ঘাঁটাঘাঁটি করেন৷



(পরের সংবাদ) »



মন্তব্য চালু নেই