মেইন ম্যেনু

প্রকাশ্য রাস্তায় দিন দুপুরে স্ত্রীকে উলঙ্গ করে ঘুরালো তারই স্বামী

নিউইয়র্কের রাস্তায় দিন দুপুরে স্ত্রীকে উলঙ্গ করে ঘুরালো তারই স্বামী (বিকৃত মানসিকতার)। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বন্ধুর সঙ্গে উত্তেজক ম্যাসেজ আদান প্রদান করার বিষয়টি স্বামীর নজরে আসলে,শাস্ত হিসাবে স্বামী তার স্ত্রীকে রাস্তায় উলঙ্গ করে হাঁটাতে বাধ্য করে।

স্ত্রীকে নির্যাতনের এই ভিডিও সোস্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পর অনেকেই সমালোচনা করেছেন। তবে এই ভিডিওর সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই।

ভিডিও ক্লিপে দেখা যাচ্ছে, পুরুষটি তার স্ত্রীকে রাস্তায় অপমান করছে এবং তাকে উলঙ্গ হয়ে হাঁটতে বাধ্য করছে। এসময় ওই নারীর কাছে একটি তোয়ালে ছিলো। সেটা দিয়ে ওই নারী তার শরীরের স্পর্শকাতর স্থানগুলো ঢাকার চেষ্টা করছেন। কিন্তু স্বামী নামের এই অমানুষটি শেষ পর্যন্ত স্ত্রীর কাছ থেকে লজ্জাস্থান ঢাকার জন্য তোয়ালেটি কেড়ে নিয়ে ছিড়ে ফেলে।

ওই নারীর অপরাধ- সাতজন পুরুষের সঙ্গে অনলাইনে চ্যাট করেছে। এবং ম্যাসেজগুলো ছিলো অশ্লীল। এজন্যই ক্ষিপ্ত হয়ে স্ত্রীকে নিউইয়র্কের রাস্তায় প্রকাশ্যে উলঙ্গ করে হাঁটাতে বাধ্য করে।তবে এই ভিডিওটি সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পর অনেকই এই ভিডিওর সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।

ওই দম্পতির পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি। তবে রাস্তায় যখন স্ত্রীকে ধমকাচ্ছিলেন তখন ওই পুরুষ স্প্যানিশ ভাষায় কথা বলছিলেন। প্রথমে ওই নারী রাস্তায় তোয়ালে পড়ে হাঁটছিলো। এসময় তার স্বামী তাকে তোয়ালে খুলতে বাধ্য করে। এবং বলতে থাকে- তোমার তোয়ালে খুলো। এটা তোমার পাপের শাস্তি। কিন্তু স্ত্রী মোটরবাইকের একটি শিট দিয়ে নিজেকে ঢাকার চেষ্টা করছে।

তবে নিউইয়র্কের কোন রাস্তায় এই ভিডিও করা হয়েছে তা উল্লেখ করা হয়নি। তবে প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে এটা নিউইয়র্কের হারলেমে করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই