মেইন ম্যেনু

প্রচণ্ড গরমে পেছালো যুক্তি উপস্থাপন

একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় বাগেরহাটের সিরাজ মাস্টার, খান আকরাম হোসেন ও লতিফ তালুকদারের বিরুদ্ধে যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের জন্য আগামী ১৫ জুন দিন নির্ধারণ করা হয়েছে। গরম আবহাওয়া ও সুপ্রিমকোর্টের অবকাশের বিষয় বিবেচনা করে ট্রাইব্যুনাল এ দিন নির্ধারণ করেন।

রোববার এক আবেদনের শুনানির পরিপ্রেক্ষিতে চেয়ারম্যান বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বে তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনাল-১ যুক্তি উপস্থাপনের জন্য এ দিন নির্ধারণীর আদেশ দেন।

এর আগে আসামিদের বিরুদ্ধে যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের জন্য ট্রাইব্যুনালের কাছে সময় আবেদন করেন আসামিপক্ষের আইনজীবীরা।

এসময় ট্রাইব্যুনালে আসামি খান আকরাম হোসেন ও লতিফ তালুকদারের পক্ষে সময় আবেদনের শুনানি করেন ব্যারিস্টার মীর সারোয়ার হোসেন। এছাড়াও আসামি সিরাজ মাস্টারের পক্ষে সময় আবেদনের শুনানি করেন সিরাজ মাস্টারের পক্ষে রাষ্ট্র নিযুক্ত আইনজীবী আবুল হাসান।

রাষ্ট্রপক্ষে উপস্থিত ছিলেন প্রসিকিউটর সাইয়েদুল হক সুমন, প্রসিকিউটর সৈয়দ হায়দার আলী, প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ প্রমুখ।

পরে ট্রাইব্যুনাল গরম আবহাওয়া এবং সুপ্রিমকোর্টের অবকাশের বিষয়ে বিবেচনা করে মামলার কার্যক্রম আগামী ১৫ জুন পর্যন্ত মুলতবি করেন।

উল্লেখ্য, এর আগে গত ৫ নভেম্বর তিনজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে ২ ডিসেম্বর সাক্ষ্যগ্রহণ ও প্রসিকিউশনের সূচনা বক্তব্য উপস্থাপনের জন্য দিন ঠিক করে দেন আদালত।

গত ১৫ সেপ্টেম্বর এ তিন আসামির বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ আমলে নেন ট্রাইব্যুনাল। তার আগের দিন গত ১৪ সেপ্টেম্বর সায়েদুল হক সুমন ও শেখ মুশফিক কবির তিন আসামির বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দাখিল করেন।

মানবতাবিরোধী অপরাধে সিরাজ মাস্টারের বিরুদ্ধে ছয়টি এবং আব্দুল লতিফ ও খান আকরামের বিরুদ্ধে যৌথভাবে ৪টি অভিযোগ আনা হয়েছে। গত ২৫ আগস্ট এ তিনজনের বিরুদ্ধে তদন্ত সংস্থা প্রতিবেদন দেয়।

এদের বিরুদ্ধে ৯টি খণ্ডে মোট ৮৪৪ পৃষ্ঠার ডকুমেন্ট তৈরি করা হয়েছে। এছাড়া এদের বিরুদ্ধে ৬৫ সাক্ষীর সাক্ষ্য লিপিবদ্ধ করা হয়েছে বলে জানায় তদন্ত সংস্থা। এ মামলায় আসামিদের পক্ষে চারজন সাফাই সাক্ষি উপস্থাপন করেন আসামিপক্ষের আইনজীবীরা।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই