মেইন ম্যেনু

প্রতিবেশী দেশ থেকে গ্যাস আমদানির চিন্তা

চাহিদা মেটাতে এবার গ্যাস আমদানির চিন্তা-ভাবনা করছে সরকার।বেসরকারি পর্যায়ে কোন উদ্যোক্তা গ্যাস আমদানির আগ্রহ জানালে সরকার সহযোগিতা করবে। এ কথা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি বিষয়ক উপদেষ্টা তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী।

শনিবার রাজধানীর মতিঝিলে ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ (ডিসিসিআই) আয়োজিত এক সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য প্রদানকালে তিনি এ কথা বলেন।

তৌফিক-ই-ইলাহী বলেন, ‘গ্যাস আমদানির জন্য ল্যান্ড বেসড এলএনজি টার্মিনাল করার ব্যবস্থা হচ্ছে। প্রতিবেশী দেশ থেকে পাইপ লাইনেও গ্যাস আমদানির কথা ভাবা হচ্ছে। মিয়ানমার কিংবা ভারতের ত্রিপুরা থেকে গ্যাস আনা যেতে পারে। বেসরকারি উদ্যোক্তাদের কেউ প্রতিবেশী দেশ থেকে গ্যাস আমদানি করতে আগ্রহ দেখালে সরকারের পক্ষ থেকে সহযোগিতা করা হবে।’

‘আশা করছি ২০১৯ সালে মাতারবাড়ি থেকে আমরা বিদ্যুৎ পাব। জ্বালানি চাহিদা মেটাতে গ্যাস অনুসন্ধান কার্যক্রমও জোরদার করা হচ্ছে। আগামী ৫ বছরে ১০০ টা কূপ খনন করা হবে। এ ব্যাপারে পরিকল্পনা চূড়ান্ত করা হচ্ছে।’

তৌফিক-ই-ইলাহী আরও বলেন, দেশে প্রাইমারি ফুয়েল সাপ্লাই বেড়েছে ৪৫ শতাংশ। আমরা জরিপ করে জানতে পেরেছি বর্তমানে দেশের ৮০ শতাংশ মানুষ বিদ্যুৎ সুবিধা পাচ্ছে। এ খাতে যে সাবসিডি দেয়া হয় অনেকে তার বিরোধিতা করেন। তবে এটা সামাজিক উন্নয়নের কথা চিন্তা করেই করা হয়। শিল্প খাতে যেটা দেয়া হয় সেটা ইনভেস্টমেন্ট। এ জন্য দাম সম্পর্কে সচেতনতা বাড়ানো প্রয়োজন।

ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনারা নিজেদের শিল্পগুলোকে বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে নিয়ে আসুন। জমির চিন্তা করেই এসব অঞ্চল করা হয়েছে। সেখানে কোয়ালিটি বিদ্যুৎ দেওয়া হবে।






মন্তব্য চালু নেই