মেইন ম্যেনু

প্রথম দিনের আয়ে ‘বাহুবলী’র রেকর্ড

কথায় বলে ‘যত গর্জে তত বর্ষে না’; কিন্তু বাংলা প্রবাদটির অন্তর্নিহিত অর্থ ‘বাহুবলী’র ক্ষেত্রে মিললো না। মিললো না, না বলে বরং বলা উচিত ঠিক উল্টোটাই ঘটলো। হ্যাঁ, এস এস রাজমৌলির ছবি ‘বাহুবলী’র কথাই বলা হচ্ছে। মুক্তির আগে যতই ডাক-ঢোল পেটানো হোক না কেন ছবি মুক্তির পরই হয় আসল পরীক্ষা।

এখন পর্যন্ত যা দেখা যাচ্ছে তাতে সেই পরীক্ষায়ও উতরে যাচ্ছে আড়াইশ’ কোটি রুপির ছবি ‘বাহুবলী’। স্বাধীন ভারতের ইহিতাসে এত বড় বাজেটের ছবি আর হয়নি বলে জানাচ্ছেন সংশ্লিষ্টরা। শুক্রবার মুক্তি পাওয়ার দিনে তাই ‘বাহুবলী’ নিয়ে প্রত্যাশা ছিল আকাশ ছোঁয়া।

বিভিন্ন সূত্রের খবর- মুক্তির প্রথম দিনই ছবিটি দেখার জন্য কালোবাজারে ১০ হাজার রুপিতে টিকিট বেচাকেনা হয়েছে।

বিশ্বজুড়ে প্রায় চার হাজার সিনেমা হলে একযোগে মুক্তি পাওয়া ‘বাহুবলী’ তাই প্রথম দিনেই ভেঙ্গেছে শাহরুখ-দিপিকার ‘হ্যাপি নিউ ইয়ার’ ছবির আয়ের রেকর্ড। ২০১৪ সালে মুক্তি পাওয়া ‘হ্যাপি নিউ ইয়ার’ প্রথম দিনে ৪৪ কোটি ৯৭ লাখ রুপি আয় করে। আর ‘বাহুবলী’র প্রথম দিনের আয় অর্ধকোটি রুপির বেশি। যুক্তরাষ্ট্রের দুশ হলেও শুরু হচ্ছে ছবিটির প্রদর্শন।

চিত্রায়নের সময় থেকেই ‘বাহুবলী’ নিয়ে আকর্ষণ কাজ করছে। আর ওই আকর্ষণের মূল কারণ ছবিটির জন্য বিশাল বাজেট।

তেলেগু ভাষার ছবি ‘বাহুবলী’র একটি তামিল সংস্করণও রয়েছে। দর্শকদের কথা বিবেচনা করে ছবিটি হিন্দি ও মালয়ালম ভাষায় ডাবিং (অনুবাদ) করা হয়েছে। শুধু হিন্দিতে ডাবিং করা ‘বাহুবলী’র আয়ই প্রথম দিনে ৫ কোটি ১৫ লাখ রুপি, যা হিন্দিতে ডাবিং করা যে কোনো ছবির ক্ষেত্রে রেকর্ড।

ছবিতে ফুটে উঠেছে প্রাচীন ভারতে রাজ-ক্ষমতার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে দুই ভাইয়ের দ্বন্দ্ব-সংঘাতের কথা। ছবিটি নির্মাণ শুরু হয়েছিল ২০১৩ সালে। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত পরিচালক রাজমৌলির এ ছবিতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন তেলেগু তারকা প্রভাস ও রাণা দুগ্গুবাতী। এছাড়া মূল নারী চরিত্রে রয়েছেন তামান্না ভাটিয়া ও আনুষ্কা শেঠি।

বিশ মিনিটের একটি যুদ্ধের দৃশ্য ছাড়াও ছবিটিতে গান ২৬ মিনিটের কয়েকটি গান রয়েছে। দেশে-বিদেশের ভিজ্যুয়াল ইফেক্ট শিল্পিী আর আর্টিস্ট মিলে পাঁচশ’র বেশি কর্মী বাহুবলী নির্মাণের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। পুরাণকে আশ্রয় করে নির্মিত ছবিটির অগ্রিম টিকিট না পেয়ে অন্ধ্রপ্রদেশ আর তেলেঙ্গানায় প্রেক্ষাগৃহ ভাংচুর এমনকি মামলা দায়েরের ঘটনাও ঘটেছে। সূত্র: এনডিটিভি ও বিবিসি






মন্তব্য চালু নেই