মেইন ম্যেনু

‘প্রধানমন্ত্রী আপনি ছদ্মবেশে বের হয়ে দেখেন মানুষ কত কষ্টে আছে’

বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে একবার ছদ্মবেশে বের হয়ে দেখার অনুরোধ করেছেন যে, জনগণ আসলে কেমন আছে, মানুষ কত কষ্ট করে বসবাস করছে। প্রধানমন্ত্রীকে মাতুয়াইল যাওয়ার পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, গিয়ে দেখুন ওখানে দুর্গন্ধে জনগণ বসবাস করতে পারছে না, চলাচল করতে পারছে না।

আমরা দেশের ময়লা সরাতে পারছি না, কীভাবে এ দেশকে মধ্য আয়ের দেশে রূপান্তরিত করবেন? প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে এমন প্রশ্নও রাখেন তিনি।

জাতীয় সংসদের নবম অধিবেশনের সমাপনী দিনে সোমবার রাতে রাষ্ট্রপতির ভাষণের উপর আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে বিরোধী দলীয় নেতা এসব কথা বলেন।

প্রতিবেশি দেশ ভারত-চীনের সঙ্গে সম্পর্ক জোরদারের বিষয়টিও উঠে আসে রওশনের বক্তব্যে। প্রধানমন্ত্রীকে তিনি মনে করিয়ে দেন, বন্ধুত্ব বদলানো যায়, প্রতিবেশি বদলনো যায় না।

আরো বেশি কর্মসংস্থানের পরামর্শ দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে তিনি আরো বলেন, জনগণের জন্য কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করুন। ভেজাল মুক্ত খাদ্য চায় জনগণ। জনগণ চিন্তা করছে তারা কি নিরাপদে থাকছে? সবাই কি নিরাপদ খাদ্য খাচ্ছে? এ বিষয়টি কেউ খতিয়ে দেখছে না। ২০৪১ সালে যে বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন দেখছেন তা বাস্তবায়ন করতে হলে দেশবাসীকে ভেজাল মুক্ত খাবার খাওয়াতে হবে।

শিক্ষার বাণিজ্যিকীকরণের সমালোচনা করে রওশন এরশাদ বলেন, শিক্ষা হচ্ছে এখন বিনিয়োগের বড় জায়গা।

গণতন্ত্র ও সংবিধান রক্ষার জন্য জাতীয় পার্টি ৫ জানুয়ারি নির্বাচনে অংশগ্রহন করেছিল- এমন দাবি করে বিরোধীদলীয় নেতা বলেন, এখন গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করার জন্য সম্মিলিতভাবে চেষ্টা করতে হবে। কারণ, আমরা চাই ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত, অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র।






মন্তব্য চালু নেই