মেইন ম্যেনু

প্রধান বিচারপতির দরবারে হেফাজত

রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম সংবিধানে থাকবে কি থাকবে না- তা নিয়ে হাইকোর্টে শুনানি শুরু হওয়ার দিন আজ সোমবার হেফাজতে ইসলামের একটি প্রতিনিধি দল প্রধান বিচারপতির দপ্তরে যাওয়ার অনুমতি পেয়েছে এবং পরে তারা প্রধান বিচারপতির কাছে জমা দেয়ার জন্য রেজিস্ট্রারের কাছে তাদের একটি দাবিনাম পেশ করেন।

প্রথমে হাইকোর্টে যেতে তাদেরকে বাধা দেয়া হলেও পরে পুলিশ তাদের একটি প্রতিনিধি দলকে ভেতরে যাওয়ার অনুমতি দেয়।প্রতিনিধি দলের নেতারা সুপ্রিমকোর্টের রেজিস্ট্রারের সঙ্গে দেখা করে তার কাছে স্মারকলিপিটি তুলে দেন।

সংবিধানে রাষ্ট্রধর্ম হিসেবে ইসলামকে অন্তর্ভুক্তির বিধান নিয়ে হাইকোর্টে চূড়ান্ত শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে আজ সোমবার। বিচারপতি নাইমা হায়দারের নেতৃত্বে তিন সদস্যের হাইকোর্টের বৃহত্তর বেঞ্চ এ শুনানি গ্রহণ করবেন। বেঞ্চের অপর দুই সদস্য হলেন বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামাল।

সোমবারের কার্যতালিকা অনুযায়ী বেলা ২টা থেকে বিকাল সোয়া ৪টা পর্যন্ত একত্রে বৃহত্তর বেঞ্চে বসবেন তিন বিচারপতি।

সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলামকে বাদ দেয়ার তাদের ভাষায় ষড়যন্ত্রের অভিযোগে জামায়াত ইসলামও আজ সারাদেশে হরতাল ডেকেছে। হেফাজতে ইসলামও গত শুক্রবার বিক্ষোভ করে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে। এরই ধারাবাহিকতায় হেফাজত নেতারা আজ প্রধান বিচারপতির কাছে স্মরকলিপি দিলেন।

গতকাল রবিবার বিকাল ৫ টায় হেফাজতে ইসলাম ঢাকা মহানগরের যুগ্ম সদস্য সচিব মাওলানা ফজলুল করিম কাশেমী প্রধানবিচারপতির কাছে স্মরাকলিপি দেয়ার সিদ্ধান্তে কথা জানান।

মাওলানা কাশেমী বলেন, রবিবার আমরা আইনমন্ত্রীর বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছি। সোমবার প্রধান বিচারপতির বরাবর স্মারলিপি প্রদান করবো। সুপ্রিমকোর্টের রেজিস্ট্রারের পিএস আতিকুস সামাদের সঙ্গে এ বিষয়ে আমরা কথা বলেছি।






মন্তব্য চালু নেই