মেইন ম্যেনু

প্রধান বিচারপতির বক্তব্য অনুযায়ী সরকার অবৈধ

সম্প্রতি প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহার বক্তব্য প্রসঙ্গে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘প্রধান বিচারপতির দেয়া অনুযায়ী সরকারের বৈধতা নেই। অবৈধ সরকার অনৈতিকভাবে ক্ষমতায় থাকার জন্য দুর্নীতিকে বৈধতা দিচ্ছে। এ নিয়ে সরকারের মধ্যেই কোন্দল শুরু হয়েছে।’

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঠাকুরগাঁও পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপির নবনির্বাচিত মেয়রের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, ‘দেশের জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দেশের গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে হবে। এই অবৈধ সরকারের কাছে দেশের মানুষ জিম্মি হয়ে পড়েছে। এই সরকার ক্ষমতায় থাকলে কখনও সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব না।’

তিনি বলেন, ‘ঠাকুরগাঁওয়ে স্থগিত কেন্দ্রে নির্বাচনের মতো যদি সারাদেশে সুষ্ঠু নির্বাচন হতো তাহলে বিএনপি প্রার্থী ২শ’টির বেশি পৌরসভায় নির্বাচিত হতো। দেশের মানুষ পৌরসভা নির্বাচনে ভোট চুরির ঘটনা দেখেছে। ভোট চুরির জন্য সরকারকে নির্বাচন কমিশনই সহযোগিতা করেছে।’

ঠাকুরগাঁও জেলা বিএনপির নেতাকর্মীদের নির্দেশনা দিয়ে তিনি বলেন, ‘সারাদেশে আন্দোলন হলেও আমরা সফল হতে পারছি না। মতভেদ ভুলে গিয়ে আমাদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করতে হবে। যেসব নেতাকর্মী মামলার শিকার হয়েছেন, তাদের তালিকা প্রস্তুত করতে হবে। সবার তালিকা মানুষকে জানাতে হবে। এখন আমাদের দলের ছয় হাজার নেতাকর্মী কারাগারে রয়েছেন।’

দেশে আইনের শাসন নেই অভিযোগ করে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব বলেন, ‘আমাদের নেত্রী সংলাপ আহ্বান করেছেন কিন্তু তারা আলোচনা চায় না। তারা জানে সংলাপের মাধ্যমে সুষ্ঠু নির্বাচন হলে তারা জয়লাভ করতে পারবে না।’

তিনি বলেন, ‘জিয়াউর রহমানের জানাজায় লাখ লাখ মানুষ হয়েছিল। তার কবরে হাত দিতে গেলে লাখ লাখ মানুষ প্রতিবাদে ফেটে পড়বে। কাউকে দাওয়াত দেয়া লাগবে না। সরকারের উচিত বুঝে শুনে কবরে হাত দেয়া।’

মির্জা আলমগীর বলেন, ‘পত্রিকায় নিউজ যা-ই হোক তারেক রহমান ভবিষ্যতে নেতৃত্ব দিবেন আমরা এটা বিশ্বাস করি। আমরা ধানের শীষের সমর্থক। শহীদ জিয়ার সৈনিক।’

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন নবনির্বাচিত মেয়র মির্জা ফয়সল আমিন, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক তৈমুর রহমান প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই