মেইন ম্যেনু

প্রধান বিচারপতিসহ ৮ জনের কারাদণ্ডের আদেশ

কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সিএস কারনান ভারতের সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতিসহ আট বিচারপতিকে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন। ১৯৮৯ সালের তফসিলি জাতি/উপজাতিদের উপর অত্যাচার প্রতিরোধ আইনের আওতায় সোমবার তিনি এ রায় ঘোষণা করেছেন।

চলতি বছরের প্রথমদিকে মাদ্রাজ হাইকোর্টের বিচারপতি কারনান ভারতের ২০ জন ‘দুর্নীতিগ্রস্ত বিচারকের’ নাম উল্লেখ করে তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত দাবি করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে চিঠি পাঠান।এ ঘটনার পর তাকে বদলি করে কলকাতা হাইকোর্টে পাঠিয়ে দেয় সুপ্রিম কোর্ট। তখন থেকেই বিচারপতি কারনান এবং সুপ্রিম কোর্ট মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে। সুপ্রিম কোর্ট বিচারপতি কারনানের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ আনলে সংশ্লিষ্ট বিচারকদের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করেন তিনি। প্রধান বিচারপতি জে এস খেহারের নেতৃত্বাধীন সাত সদস্যের বেঞ্চ ১ মে বিচারপতি কারনানের মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষার নির্দেশ দেন। এরই মধ্যে বিচারপতি কারনানের বিচারিক ও প্রশাসনিক ক্ষমতা কেড়ে নেয় সুপ্রিম কোর্ট।

সোমবার বিচারপতি কারনান তার কলকাতার নিউ টাউনের বাসভবন থেকে প্রধান বিচারপতিসহ আট বিচারতির কারাদণ্ডের রায় দেন। ১২ পৃষ্ঠার রায়ে বিচারপতিদের পাঁচ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ডের সঙ্গে ১ লাখ রুপি করে জরিমানাও করেছেন তিনি। এক সপ্তাহের মধ্যে দিল্লির খান মার্কেটে তফসিলি জাতি-উপজাতি সংক্রান্ত জাতীয় কমিশনে সেই টাকা জমা দিতে হবে। অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ডের ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

যাদের বিরুদ্ধে বিচারপতি কারনান রায় দিয়েছেন তারা হলেন, প্রধান বিচারপতি জেএস খেহর, বিচারপতি দীপক মিশ্র, বিচারপতি জে চেলামেশ্বর, বিচারপতি রঞ্জন গগৈ, বিচারপতি মদন বি লোকুর, বিচারপতি পিনাকী চন্দ্র ঘোষ, বিচারপতি কুরিয়েন জোসেফ এবং বিচারপতি আর ভানুমতী। এদের মধ্যে বিচারপতি ভানুমতী বাদে বাকি সাতজন একই বেঞ্চের সদস্য। প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন সেই সাত সদস্যের বেঞ্চই বিচারপতি কারনানকে বিচার এবং প্রশাসনিক কাজকর্ম থেকে বিরত রাখার নির্দেশ দিয়েছিল।






মন্তব্য চালু নেই