মেইন ম্যেনু

প্রফেসর যখন পর্নো তারকা

ছাত্রদের কাছে সে প্রফেসর।ক্যামিকেল এনজিনিয়ারিং পড়ান কিন্তু একদিন তার এক ছাত্র হঠাৎ আবিষ্কার করলো প্রফেসরকে সে যেন কোন এক পর্নো সিনেমায় দেখেছে।আর যায় কোথায়। ফাঁস হয়ে গেল প্রফেসরের দ্বৈত জীবনের গোপন তথ্য। ঘটনাটি ঘটেছে যুক্তরাজ্যে।

একষট্টি বছর বয়েসী প্রফেসর নিকোলাস গোডার্ড গত ২৫ বছর ধরে ক্যামিক্যাল এনজিনিয়ারিং এর অধ্যাপক কিন্তু গত দশ বছর ধরে তার অন্য আর একটি পরিচয় হলো সে পর্নো সিনেমার তারকা।

পর্নো জগতে তিনি ওল্ড নিক ছদ্মনামে পরিচিত ছিলেন।আর অন্য জীবনে যুক্তরাজ্যের ম্যানচেস্টার ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক।তার রয়েছে অসংখ্য প্রকাশিত একাডেমিক লেখা।

এখন পর্নো তারকা হিসেবে দ্বৈত জীবনযাপনের খবর ফাঁস হয়ে যাওয়ায়, ইউনিভার্সিটি অধ্যাপকের পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন তিনি।আর ওল্ড নিকও কদিন আগে অবসর নিয়েছিলো। সূত্র: বিবিসি।






মন্তব্য চালু নেই