মেইন ম্যেনু

প্রবাসীদের ৫০ শতাংশ ঋণ দেওয়ার নির্দেশ

বাড়ি নির্মাণ বা ফ্ল্যাট কিনতে প্রবাসীদের ৫০ শতাংশ ঋণ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

রোববার বাংলাদেশ ব্যাংকের ফরেন এক্সচেঞ্জ পলিসি ডিপার্টমেন্ট থেকে দেওয়া এক প্রজ্ঞাপনে দেশের সব ফরেন এক্সচেঞ্জ ডিলারদের এ নির্দেশ দেওয়া হয়।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, বিদেশে অবস্থানরত সব বাংলাদেশির জামানতের বিনিময়ে ৫০:৫০ অনুপাতে ঋণ দিতে হবে।

এর আগে শনিবার রাজধানীর একটি হোটেলে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান বলেন, প্রবাসীরা এনআরটিএ (প্রবাসীদের হিসেব) অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে ব্যাংকের মাধ্যমে ফ্ল্যাট কেনার জন্য আবেদন করতে পারেন। যেখানে ব্যাংক তাদের সব নিশ্চয়তা দেবে। ব্যাংক ভালো মানের বিভিন্ন রিয়েল এস্টেট কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি করে নিজেরাই নিশ্চয়তাকারী হয়ে প্রবাসীদের ফ্ল্যাট কিনতে সহযোগিতা করবে। এতে প্রবাসীদের প্রতারিত হওয়ার সুযোগ থাকবে না বলে উল্লেখ করেন তিনি।

বিদেশে বসবাসরত বাংলাদেশি নাগরিকরা দেশে কার্যরত ব্যাংকগুলোর সহায়তায় যাতে নিরাপদে ফ্ল্যাট কিনতে পারেন, সে বিষয়ে ব্যাংকগুলোকে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর।

প্রবাসীরা দেশে আবাসন খাতে বিনিয়োগ করে নানা ধরনের সমস্যা ও জালিয়াতির শিকার হন বলে অভিযোগ আছে। তাই প্রবাসীরা যাতে বিনিয়োগ-বিমুখ না হন, সেজন্য ব্যাংকগুলোকে এ ধরনের কাজ করার আহ্বান জানান বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর।

তিনি বলেন, রিহ্যাবকে (আবাসন খাতের সংগঠন) তাদের আচরণ (একজনের ফ্ল্যাট আরেকজনের কাছে বিক্রি করা) বদলানোর অনুরোধ করছি। তাদের অবস্থানকে মানুষের কাছে বিশ্বাসযোগ্য করে তুলতে লিডারশিপের ভূমিকায় আসতে হবে।

প্রবাসীরা পাসপোর্ট থেকে শুরু করে তাদের সব ধরনের ডকুমেন্ট ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিভিন্ন ব্যাংকে পাঠিয়ে অ্যাকাউন্ট (ব্যাংক হিসাব) খুলতে পারবে বলেও জানান আতিউর রহমান।

এ ছাড়া প্রবাসীদের পাঠানো টাকা নিয়ে যদি কোনো ব্যাংক প্রতারণার আশ্রয় গ্রহণ করে, তাহলে তাদের ছাড় দেওয়া হবে না বলেও সতর্ক করেন ড. আতিউর রহমান। গভর্নর বলেন, সরকারের সহযোগিতা পেলে প্রবাসীদের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক পেনশন স্কিমের ব্যবস্থা করতে চায়।

দেশের অর্থনীতির স্থিতিশীলতার বিভিন্ন চিত্র তুলে ধরে প্রবাসীদের বেশি বেশি করে পুঁজিবাজার ও আবাসন খাতে বিনিয়োগের আহ্বান জানান গভর্নর।






মন্তব্য চালু নেই