মেইন ম্যেনু

প্রবীণ সাংবাদিক শফিক রেহমানের গ্রেফতারের প্রতিবাদে ফ্রান্সে সমাবেশ

ওমর ফারুক, (প্যারিস) ফ্রান্স প্রতিনিধি : প্রবীণ সাংবাদিক শফিক রেহমানের গ্রেফতারের প্রতিবাদে সমাবেশ করেছে জাতীয়তাবাদী নাগরিক মুক্তি পরিষদ, ফ্রান্স। সোমবার বিকেলে প্যারিসের হোস্-এর একটি রেস্টুরেন্টে এ প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ফ্রান্স বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এম এ তাহের বলেন, আওয়ামী অবৈধ সরকার ক্ষমতা চিরস্থায়ী করতে ১৯৭২ থেকে ৭৫-এর মতো বাকশালী কায়দায় গণমাধ্যমের কণ্ঠ রোধ করতে চাই। সেকারণে গুণি সাংবাদিক, লেখক, কলামিস্ট ও বুদ্ধিজীবীদের একে-একে মিথ্যা মামলা দিয়ে জেল-হাজতে প্রেরণ করছে। রিমাণ্ডের নামে তাদের ওপর চালানো হচ্ছে পৈশাচিক নির্যাতন। আমার দেশের সম্পাদক মাহমুদুর রহমান ও সাংবাদিক নেতা শওকত মাহমুদের পর দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার অগ্র সৈনিক ৮৩ বছর বয়সী প্রবীণ সাংবাদিক শফিক রেহমানকে মিথ্যা অভিযোগে গ্রেফতার করা হলো। যা ইতিহাসের কলঙ্কজনক অধ্যায়। ফ্যাসিস্ট এ সরকারকে জাতি কোনোদিন ক্ষমা করবে না। এদেরকে অবিলম্বে মুক্তি দেয়া না হলে কঠোর আন্দোলনের মাধ্যমে স্বৈরাচার এ সরকারের পতন ঘটবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। সংগঠনের সভাপতি শামীমা আক্তার রুবী বলেন, অবৈধ আওয়ামী সরকারের পায়ের নিচে মাটি নেই। তারা দেশকে পুলিশ রাষ্ট্র বানিয়ে মামলা হমলা করে জনগণকে আতঙ্কে রাখতে চাই। যারা সরকারের বিরুদ্ধে ভিন্নমত পোষণ করে তাদেরকে মিথ্যা মামলায় গ্রেফতার করে নির্যাতন করা হয়। শফিক রেহমানের মতো একজন গুনি মানুষকে গ্রেফতারের মাধ্যমে সরকার আবাও প্রমাণ করলো দেশের কোনো মানুষই তাদের কাছে নিরাপদ নয়। তারা যেকোনো মূল্যে ক্ষমতায় থাকতে চাই। কিন্তু এভাবে বেশিদিন চলতে পারে না। শফিক রেহমানসহ সব রাজবন্দিদের অবিলম্বে মুক্তি না দিলে ফ্রান্স থেকেই সরকার পতনের আন্দোলন শুরু হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। গোলাম রাসুল রুবেলের পরিচানায় সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, ফ্রান্স বিএনপির সহ-সভাপতি প্রফেসর তসলিম উদ্দিন, কৃষি গবেষক ডক্টর মোহাম্মদ কামরুল হাসান, প্রকৌশলী এম শরিফুল ইসলাম, বদরুল হাসান, আল আমিন ও সাঈদ আহম্মেদ।






মন্তব্য চালু নেই