মেইন ম্যেনু

প্রশংসায় বাড়ে শিশুর দক্ষতা

শিশুকে দারুণ শৈশব উপহার দিতে মা-বাবার দায়িত্বের শেষ নেই। বাচ্চার আদর-যত্ন, প্রয়োজন পূরণ, লেখাপড়া, সুস্থভাবে বেড়ে ওঠার জন্য খেয়াল রাখাসহ করতে হয় অনেক কিছু। আদরের সন্তান যেন অতিরিক্ত আদর পেয়ে অকর্মন্ন না থাকে সেদিকেও লক্ষ্য রাখা জরুরি। জীবনে প্রতিষ্ঠা পেতে দক্ষতার সঙ্গে সব কাজ করা চাই। আর এই দক্ষতা অর্জনে অভ্যাসের চর্চা রাখতে হবে ছোটবেলা থেকে।

ছোটবেলায় যেসব বাচ্চা বাবা-মায়ের পরম আদর পায় তাদের মানসিকতা হয় যথেষ্ট মমতাশীল। কর্মক্ষেত্রেও আত্মবিশ্বাসী ছেলেমেয়েরা ভালো করে। আর এই আত্মবিশ্বাসের জন্ম হয় ছেলেবেলায়। ছোট ছোট কাজের জন্য বাবা-মায়ের কাছে পাওয়া প্রশংসা তাদের কাজের দক্ষতা বাড়িয়ে দেয়। উৎসাহ পেয়ে নিজের কাজ করার অভ্যাস গড়ে।

শিশুরা নিজের বই খাতা গোছানো, খাবার খাওয়া, নিজের পোশাকটা যথাস্থানে রাখা, জুতা গুছিয়ে রাখা, ছোট ভাইবোনের দেখাশোনা করা, বড়দের এটা ওটা এগিয়ে দেয়ার কাজ করতে পারে। এগুলো করতে করতে একসময় নিজের দায়িত্ব সম্পর্কে সচেতনতা গড়ে উঠবে।

জরিপে দেখা গেছে, কোনো কাজের জন্য শিশুমন যখন বাধা পায়, তখন আগ্রহ হারিয়ে ফেলে। আবার সঠিক নির্দেশনা এবং প্রশংসা পেলে শিশুর কাজ করার আগ্রহ বেড়ে যায় অনেকগুণ। এভাবে তার আত্মবিশ্বাস দিনে দিনে একটি শক্ত ভিত্তির ওপর দাঁড়াতে সক্ষম হয়। কর্মক্ষেত্রে প্রবেশ করেও সেই আত্মবিশ্বাসের প্রতিফলন ঘটতে থাকে।

শিশু কোনো বিষয়ে খারাপ করলে তাকে সহজ ভাষায় এবং ইতিবাচক ভঙ্গিতে বুঝিয়ে বলুন। তাতে কাজের দায়ভার এবং সিদ্ধান্ত নেয়ার যোগ্যতা গড়ে উঠবে। তাদের কাজের প্রতি মনোযোগও বাড়বে।






মন্তব্য চালু নেই