মেইন ম্যেনু

প্রস্রাবের রঙ বলে দেবে আপনার সুস্থতা

রোজ সকালে ঠিক কী রঙের প্রস্রাব হয় আপনার? খেয়াল করে দেখেছেন কখনো? নাকি কখনো কখনো অদ্ভুত রং দেখে চমকে গিয়েছেন? জানেন কি আমাদের শরীর কতটা সুস্থ, ঠিক কী সমস্যা হচ্ছে তা আমাদের জানান দেয় প্রস্রাবের রং? জেনে নিন প্রস্রাবের রং কেমন হলে কী বলছে আপনার শরীর।

স্বচ্ছ প্রস্রাব: আপনি প্রয়োজনের তুলনায় বেশি হাইড্রেটেড। যারা অতিরিক্ত পানি পান করেন তাদের এই ধরনের প্রস্রাব হয়। এটা শরীরের পক্ষে একেবারেই ক্ষতিকারক নয়। বরং বলা যেতে পারে আরেকটু কম পানি পান করলেও সমস্যা নেই।

স্বচ্ছ হলদেটে: আপনি যথেষ্ট সুস্থ। প্রস্রাবের রং এমনটই হওয়া উচিত্। এর মানে আপনার শরীর ঠিকঠাক কাজ করছে। আপনি পরিমাণ মতো পানি পান করছেন।

গাঢ় হলুদ: এই রংও স্বাভাবিক। এর রঙের মানে আপনার শরীর ঠিকঠাক কাজ করলেও সামান্য ডিহাইড্রেটেড। পানি পানের পরিমাণ বাড়ালেই সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে।

মধু রঙের: এটাও স্বাভাবিক। আপনার শরীর এখনও ঠিকঠাক কাজ করছে। কিন্তু শরীরে কিছুটা তরলের অভাব হচ্ছে। তরল জাতীয় খাবার বাড়াতে হবে। ফলের রস, ডাল জাতীয় খাবার প্রতি দিনের ডায়েটে রাখুন।

কমলা: এই রঙের প্রস্রাবের বেশ কিছু অর্থ হতে পারে। ডিহাইড্রেশনের কারণে কমলা প্রস্রাব হলে বিশেষ চিন্তার কিছু নেই। আবার কিছু কিছু ওষুধের কারণেও প্রস্রাবের রঙ কমলা হতে পারে। তবে যদি কমলা প্রস্রাবের সঙ্গে আপনার হালকা রঙের মল হয় তাহলে কিছুটা চিন্তার বিষয়। লিভারের সমস্যা হলে এমনটা হয়। অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

নীল বা সবুজ: এই রঙের প্রস্রাব সত্যিই চমকে যাওয়ার মতো। খাবারের রঙের কারণে নীল বা সবুজ প্রস্রাব হতে পারে। আবার হাইপারক্যালসেমিয়া নামক বিরল অসুখে ভুগলেও প্রস্রাবের রং এমন হতে পারে। অনেক সময় ইউরিনারি ট্রাক্টে ইনফেকশন হলেও প্রস্রাবের রং এভাবে বদলে যায়।

ঘোলাটে: কিডনির সমস্যা বা ইউরিনারি ট্রাক্টে ইনফেকশন হলে প্রস্রাবের রং ঘোলাটে হয়ে যায়। তবে যদি মাঝে মাঝে আপনার ঘোলাটে প্রস্রাব হয় তাহলে চিন্তার বিশেষ কিছু নেই। খাবারে প্রোটিনের পরিমাণ বেশি হলে এমনটা হতে পারে। কিন্তু প্রতি দিন ঘোলাটে প্রস্রাব হলে অবশ্যই চিকিৎসকের কাছে যান।

সিরাপ বা বাদামি রঙের: শরীর ডিহাইড্রেশনের চরম পর্যায়ে গেলে বা লিভার ঠিক মতো কাজ না করলে বাদামি রঙের প্রস্রাব হয়। আবার কিছু কিছু খাবার বা ওষুধের কারণেও বাদামি প্রস্রাব হতে পারে। যদি আপনার বাদামি প্রস্রাব হয় তাহলে প্রথমেই পানি পান বাড়ান। যদি তাতেও রং হালকা না হয় তাহলে লিভারের সমস্যা হচ্ছে আপনার।

লাল বা গোলাপি: এই রঙের প্রস্রাব দেখলে অনেকেই ভয় পেয়ে যান। তবে সব সময় গুরুতর সমস্যার কারণেই এমনটা হয় তা নয়। মোট চারটি কারণে এটা হতে পারে। প্রস্রাবে রক্ত চলে এলে, কোনো বিশেষ খাবার, বিশেষ ওষুধ বা টক্সিনের কারণে। বিট, ব্লুবেরি, ব্ল্যাকবেরি খেলে প্রস্রাবের রঙ গোলাপি হতে পারে। টক্সিন, লেড বা পারদের কারণেও গোলাপি রঙের প্রস্রাব হতে পারে। তবে যদি রক্তের কারণে হয় তাহলে আপনার ইউরিনারি ট্রাক্ট ইনফেকশন, টিউমর বা প্রোস্টেটের সমস্যা, কিডনি বা ব্লাডার স্টোন হয়ে থাকতে পারে।






মন্তব্য চালু নেই