মেইন ম্যেনু

প্রাণভিক্ষার আবেদনে মতামত দিয়েছি, বাকিটা রাষ্ট্রপতির ব্যাপার

একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের দায় স্বীকার করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী এবং জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদের প্রাণভিক্ষার আবেদনে মতামত দিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় গুলশানে নিজ বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে আইনমন্ত্রী এ কথা জানান। তিনি বলেন, ‘সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী ও আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদের প্রাণভিক্ষার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আমি আমার মতামত প্রদান করেছি। এখন রাষ্ট্রপতি ব্যাপারটি নিস্পত্তি করবেন। আসামি পক্ষ আবেদনে বাংলাদেশের সংবিধানের ৪৯ ধারায় ‘রাষ্ট্রপতির প্রাণভিক্ষার ক্ষমতা’ প্রয়োগের অনুরোধ জানিয়েছে। এখন সেটা সর্ম্পূণ রাষ্ট্রপতির ব্যাপার।’

কখন এই আবেদন পত্র রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ে পাঠানো হবে তার জবাবে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘এর কোনো নির্দিষ্ট সময় নেই। একদিনও লাগতে পারে, দুই-তিনদিনও লাগতে পারে।’

কি মতামত দিয়েছেন এমন এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘যতক্ষণ পর্যন্ত না আবেদনটি রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ে পৌঁছুবে ততক্ষণ পর্যন্ত আমি বলতো পারবো না কি মতামত দিয়েছি। এটা আমার সাংবিধানিক দায়িত্ব।’

আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এখন তারা যেসব অভিযোগ করছেন যেসব বিষয় আগে বিচারিক আদালতেও তারা উত্থাপন করেছে। আদালত সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে তাদের সেই বক্তব্য শুনে রায় দিয়েছে। ওই রায়ের বিরুদ্ধে তারা আপিল করেছে। আপিল বিভাগ শুনানির পর রায় দিয়েছেন। সেই রায়ের বিরুদ্ধে আবার রিভিউ হয়েছে। শুনানির পর সেই রিভিউ খারিজ করে দেয়া হয়েছে। তিনটি আদালতে তাদের বিচার হয়েছে। কাজেই বিচার সম্পন্ন হবার পর এখন তাদের এইসব দাবির কোনো যৌক্তিকতা নেই। তাদের এসব দাবি নেহাতই একটা পরিস্থিতি সৃষ্টিমাত্র।’






মন্তব্য চালু নেই