মেইন ম্যেনু

প্রাণভিক্ষার আবেদন করেননি নিজামী

মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মৃত্যুদন্ডের সাজাপ্রাপ্ত জামায়াতের আমির মতিউর রহমান নিজামী প্রাণভিক্ষার জন্য আবেদন করেনি বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। সরকার তার আবেদনের অপেক্ষা করছে। তবে যে কোন সময় রায় কার্যক্রর করার জন্য প্রস্তুত।

মঙ্গলবার (১০ মে) বিকেলে সচিবালয়ে মন্ত্রী তার নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের একথা জানান। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘জেলকোড অনুযায়ী নির্দিষ্ট কোনো সময় নেই। তবে দ্রুতই রায় কার্যকর করা হবে এবং ফাঁসি কার্যকর করার জন্য সকল ধরণের প্রস্তৃতি সম্পন্ন।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ফাঁসির রায়, রিভিউ আবেদনসহ সবগুলো আদেশে ফাঁসি বহাল আছে। রায়ের পর আমরা (সরকার) একের পর এক সব আনুষ্ঠানিকতা শেষ করছি।’

কখন ফাঁসি দেয়া হবে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এখন অপেক্ষা করছি নিজামীর ক্ষমা চাওয়ার ওপর। যদি ক্ষমা চান তাহলে রাষ্ট্রপতি যে সিদ্ধান্ত দেবেন, তা দ্রুত কার্যকর হবে। আর ক্ষমা না চাইলে যেকোনো সময় তা কার্যকর করা হবে।’

সোমবার (০৯ মে) একাত্তরে বুদ্ধিজীবী হত্যার দায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াতে ইসলামীর আমির মতিউর রহমান নিজামীর রিভিউ খারিজের রায়ের পূর্ণাঙ্গ কপি প্রকাশ করে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। সুপ্রিম কোর্ট রেজিস্ট্রারের দপ্তর থেকে পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ করা হয়। রায় প্রকাশের পর সেটি পাঠানো হয় ট্রাইব্যুনালে। সেখান থেকে রায়ের কপি যায় ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে।

গত বৃহস্পতিবার (০৫ মে) মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত মতিউর রহমান নিজামীর রিভিউ খারিজ করে দেন সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগ। প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বেঞ্চ এক শব্দের এ রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার সময় প্রধান বিচারপতি শুধু বলেন, ‘ডিসমিসড’।

বেঞ্চে আরো ছিলেন বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা, বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ও বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী। এদিকে রিভিউ আবেদন খারিজের পর পুরোজাতি এখন নিজামীর ফাঁসির অপেক্ষায়।






মন্তব্য চালু নেই