মেইন ম্যেনু

প্রিভিউ কমিটিতে আটকে গেল ‘হিরো ৪২০’

যৌথ-প্রযোজনার আলোচিত ছবি ‘হিরো ৪২০’ আটকে গেল! ছবিটি নাকি যৌথ প্রযোজনার নিয়ম না মেনেই তৈরি হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সম্প্রতি নিয়মনুযায়ী এফডিসিতে যৌথ প্রযোজনার প্রিভিউ কমিটির সদস্যরা ‘হিরো ৪২০’ ছবিটি দেখেন। ছবিটি দেখে কমিটির বেশিরভাগ সদস্যরা আপত্তি জানিয়েছেন।

কমিটির একজন সদস্য নাসিরউদ্দীন দিলু বলেন,‘ এই ছবিটি দেখলে কেউ বলবে না এটা বাংলাদেশের ছবি। ছবির বেশিরভাগ দৃশ্যতে বাংলা ভাষার উচ্চারনে গরমিল আছে। তাছাড়া বাংলাদেশের শিল্পীদের উপস্থিতিও একেবারেই কম। সব মিলিয়ে আমরা এই ছবিটির বিরুদ্ধে আপত্তি জানিয়েছি।’

এফডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক তপন কুমার বলেন,‘ আমরা এই ছবির কিছু বিষয়ে অমিল পেয়েছি। তাই আপাতত ছবিটিকে ছাড়পত্রের অনুমোদন দিতে পারছি না।’

এদিকে ‘হিরো ৪২০’ ছবিটি ভারতে ১২ ফেব্রুয়ারি মুক্তি পাচ্ছে। তার ঠিক একসপ্তাহ পরে ১৯ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশেও মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল ছবিটির। কিন্তু এফডিসি তথ্য মন্ত্রনালয়ের কাছে জানিয়েছে, ছবিতে বাংলাদেশে কম শুটিং, বাংলাদেশের শিল্পীদের কম নেওয়া এবং থাকলেও ছবিতে তাঁদের কোনঠাসা করে রাখার হয়েছে। নিয়ম না মেনেই এই ছবি বানানো হয়েছে। যার ফলে সেন্সর বোর্ডের কাছে এখনও ছবি জমা করতে পারেনি প্রযোজনা সংস্থা। এ কারণেই আটকে আছে ‘হিরো ২৪০’ ছবিটি।

এদিকে আগামী ১০ ফেব্রুয়ারি ছবিটি নিয়ে এফডিসিতে যৌথ প্রযোজনা ছবির কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। সেখানেই সিদ্ধান্ত নেয়া হবে ছবিটি বাংলাদেশে প্রর্দশনের অনুমতি পাবে কি না?

জাজ মাল্টিমডিয়া সুত্রে জানা গেছে, ‘হিরো ৪২০’ ছবির বিরুদ্ধে এফডিসির দেয়া অভিযোগ খন্ডন করে একটি আবেদন করা হয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতেই এফডিসিতে ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

এদিকে যৌথ প্রযোজনার প্রিভিউ কমিটির একজন সদস্য জানিয়েছেন, ‘এই ছবিতে ফারিয়ার উপস্থিতি তেমন নেই। তাকে ঠিক বিরতির একটু আগে দেখা যাবে। ছবির শুরু থেকেই রিয়ার উপস্থিতি সকলের নজর কাড়বে।’

‘হিরো ৪২০’ ছবি মুক্তির পরই বোঝা যাবে কে নজড় কাড়ছে, কে পিছিয়ে পড়ছে।

জাজ মাল্টিমিডিয়া ও এসকে মুভিজের যৌথ প্রযোজনায় এই ছবিটি পরিচালনা করেছেন বাংলাদেশের সৈকত নাসির ও ভারতের সুজিত মন্ডল। ছবিতে অভিনয় করেছেন নুসরাত ফারিয়া, রিয়া সেন ও ওম।






মন্তব্য চালু নেই