মেইন ম্যেনু

প্রেগন্যান্সিতে যে ফল গুলো কখনোই খাবেন না

প্রেগন্যান্সিতে স্বাস্থ্যকর খাবার, ফল থাকা উচিৎ ডায়েটে। তবে এমন কিছু ফল যা অত্যন্ত উপকারী হলেও প্রেগন্যান্সির সময় হয়ে উঠতে পারে ক্ষতিকারক। জেনে নিন এমনই তিন ফল যা অবশ্যই এড়িয়ে চলুন প্রেগন্যান্সিতে।

পেঁপে : কাঁচা বা আধ পাকা পেঁপের মধ্যে থাকে ল্যাটেক্স। যা জরায়ুর সংকোচন ঘটায়। ফলে গর্ভপাতের সম্ভাবনা বেড়ে যায়। প্যাপেইন উৎসেচক যুক্ত খাবার তৃতীয় বা শেষ ট্রিমেস্টারে এ়ড়িয়ে চলুন। তবে পাকা পেঁপে খেতে পারেন। এর ভিটামিন সি ও অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট প্রেগন্যান্সির সময় অ্যাসিডিটি ও কোষ্ঠকাঠিন্য রুখতে সাহায্য করে। দুধের সঙ্গে মধু ও পাকা পেঁপে ল্যাকটেশনের জন্য দারুণ টনিক।

আনারস : আনারসের মধ্যে থাকে ব্রোমেলিন যা সার্ভিক্সের সংকোচনে সাহায্য করে। ফলে সময়ের আগেই অনুভূত হয় গর্ভযন্ত্রণা। প্রথম ট্রিমেস্টারে অবশ্যই আনারস থেকে দূরে থাকুন। ডেলিভারির আগে অনেক সময়ই আনারসের রস খান মহিলারা। এতে সার্ভিক্সের সংকোচন সহজে হয়।

আঙুর : এই ফল নিয়ে কিছুটা মতবিরোধ রয়েছে। কোনও কোনও চিকিত্সক বলেন প্রেগন্যান্সিতে আঙুর এড়িয়ে চলা উচিৎ, আবার অনেকে বলেন প্রেগন্যান্সিতে আঙুর খাওয়া যেতে পারে। আঙুর গাছে সহজে পোকা ধরার কারণে প্রচুর পরিমাণ পেস্টিসাইট ব্যবহার করা হয়। যা গর্ভবতী মা ও গর্ভস্থ শিশুর ক্ষতি করে। অন্যদিকে আঙুরের মধ্যে থাকা প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন এ ও সি শিশু এবং উভয়ের জন্যই দারুণ উপকারী।






মন্তব্য চালু নেই