মেইন ম্যেনু

ধর্ষনের পর প্রেমিকাকে হত্যা করে চলে যাওয়ার সময় প্রেমিকের হার্টএ্যাটাকে মৃত্যু!

ধর্ষনের পর প্রেমিকাকে জবাই করে হত্যার করে চলে যাওযার সময় রাস্তাতেই হার্টএ্যাটাকে মৃত্যু হলো প্রেমিকের। কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারি উপজেলার বোয়ালমারীতে রোববার এ ঘটনা ঘটে।
আর্জিনা নামের এক মেয়েকে দ্বীর্ঘদিন ধরে ভালবাসতো আইয়ুব আলী নামের এক বখাটে যুবক। কিন্তু আইয়ুবের প্রেমে কোন সাড়া দেননি কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারি উপজেলার বোয়ালমারী গ্রামের মৃত আব্দুল হাই আকন্দের কন্যা আর্জিনা খাতুন। কিন্তু হাল না ছেড়ে প্রেমিকার পিছু ছাড়ছিলো না চেংটাপাড়া গ্রামের আব্দুর বাতনের পুত্র প্রেমিক আইয়ুব আলী। পথেঘাটে প্রেম নিবেদন করে ‘ক্লান্তিহীন প্রেমিক’ বখাটে আইয়ুব যখন আর্জিনার প্রেমসাগরে হাবুডুবু খাচ্ছে ঠিক তখনই সংবাদ আসে আর্জিনার অন্যস্থানে বিয়ের দিন-তারিখ ঠিক হয়ে গেছে।
এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আইয়ুব তার এককেন্দ্রিক প্রেমকে প্রতিষ্ঠিত করতে গিয়ে হাজির হয় তার মনের প্রেমিকা আর্জিনার বাড়িতে।
রবিবার দুপুরের দিকে বখাটে আইয়ুব আলী তার কয়েক বন্ধুদের নিয়ে যখন প্রেমিকা আর্জিনার বাড়ীতে যায় তখন আর্জিনা বাড়ীর রান্নাঘরের পাশে বসে মোবাইল ফোনে গান দেখছিল।
এসময় সুকৌশলে আর্জিনাকে রান্না ঘরে নিয়ে এসে বখাটে প্রেমিক আইয়ুব আলী ও তার সঙ্গীরা ধর্ষন করে আর্জিনাকে। পরে পরিস্থিতির গ্যাড়াকলে প্রেমিকা আর্জিনাকে জবাই করে প্রেমিক আইয়ুব আলী। পরে সেখান থেকে দ্রুত পালিয়ে যাওয়ার সময় রাস্তায় হার্টএ্যাটাক করে মারা যায় বখাটে প্রেমিক আইয়ুব আলী।

এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, বখাটে আয়ুইব জোর করেই আর্জিনা খাতুনের সঙ্গে প্রেম করতে চেয়েছিল। কিন্তু আর্জিনা খাতুনের অন্য স্থানে বিয়ের দিন-তারিখ
ঠিক হওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে সে। আর এ কারণে গণধর্ষণের পর আর্জিনাকে হত্যা করা হয়েছে বলে গ্রামের মানুষের মাঝে গুঞ্জন চলছে।

নিহতের মা সাজেদা খাতুন কান্না কন্ঠে বলেন, ওই বাতেনের পোলা আইয়ুবা হামার মাইডারে ডিষ্টার্ব করতো। আমি খুনীদের ফাঁসি চাই। যাতে আমার মাইয়ার আত্মা শান্তি পায়।

এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে রৌমারী থানার ওসি সোহরাব হোসেন বলেন, এই ঘটনার সন্দেহ করে নাসির উদ্দিন (২২) নামের একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই