মেইন ম্যেনু

প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করার দিন ভুলেও খাবেন না এগুলো

অনেকদিন দেখা হয় না। ভাবছেন, প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করা দরকার। এ জন্য মনটা আনচান করছে। দেখা করতে যাবেন বেশ ভালো কথা।
কিন্তু দেখা করার দিন ভুলেও খাবেন না এগুলো, যেগুলো আপনার প্রেমিকার জন্য বিরক্তির কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে।

আপিন দেখা করতে গেলেন সেজেগুজে, গেলেন কোনো মনোরম জায়গায়। কিন্তু কাছে আসতেই মুখ থেকে বেরিয়ে এল দুর্গন্ধ।

ইমপ্রেশন খারাপ হবে না? যোগটা এখানেই। দেখা করতে যাওয়ার আগে এমন কিছু খেলেন, যা থেকে মুখের মধ্যে রয়ে গেল একেবারে বিচ্ছিরি গন্ধ। তাই প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করার দিন রুচি হলেও কয়েকটি খাবার এড়িয়ে চলুন।

দুধ দিয়ে তৈরি খাবার

দেখা করার দিন দুধ বা দুধ দিয়ে তৈরি কোনো খাবার খাবেন না। দুধে উপস্থিত অ্যামাইনো অ্যাসিডের সঙ্গে জিভের জীবাণু মিলে বিদ্ঘুটে দুর্গন্ধ তৈরি করতে পারে।

মাছ

ভাবলেন, দুপুরে মজা করে মাছভাত খেয়ে টানা একটা ঘুম দিয়ে বিকেলে দেখা করতে যাবেন। সেই পরিকল্পনা ত্যাগ করুন। প্রেম করতে যান, কিন্তু মাছ-ভাতের আইডিয়াটা ঝেড়ে ফেলে দিন। কাঁচা মাছের এমনিতেই বিকট গন্ধ। যতই হলুদ, নুন মাখিয়ে রান্না করা হোক না কেন, হাতে ও মুখে গন্ধ লেগেই থাকবে। সারাদিনে সেই গন্ধ আর যাবে না। একটা উপায়ে গন্ধ যেতে পারে। বেরনোর আগে কুলকুচি করে নিন মাউথ-ওয়াশ দিয়ে। ব্রাশও করে নিতে পারেন।

পেঁয়াজ

দেখা করার দিন ভুলেও পেঁয়াজ খাবেন না। পেঁয়াজের বাসি গন্ধ যে কতখানি বিকট, যারা খান, তারা যত না টের পান, তার দশগুণ বেশি টের পান অন্যরা।

রসুন

পেঁয়াজের মতো বিদ্ঘুটে দুর্গন্ধ সৃষ্টি করে রসুনও। পেঁয়াজ ও রসুন- দু’য়ের মধ্যেই থাকে সালফার। ফলত দুর্গন্ধ বেরুবেই। তাই রসুনও খাবেন না। কাঁচা রসুন তো নয়ই, রান্নার মধ্যেও রসুন এড়িয়ে চলুন।

তবে যাই খান আর না খান, বাড়ি থেকে বেরুনোর আগে ভালো করে ব্রাশ করে নেন। আরো ভালো হয় যদি মাউথ-ওয়াশ দিয়ে কুলকুচি করে নেন।

মাউথ ওয়াশ না থাকলে আজই কিনে নিয়ে আসুন। শুধুমাত্র মুখের দুর্গন্ধের কারণে প্রেমিকাকে হারাবেন না। মুখের দুর্গন্ধের কথা আপনাকে কিন্তু আপনার প্রেমিকা কখনোই জানাবেন না।

মুখ ফুটে এ কথা কোনো ভদ্রসভ্য লোক বলে না। জাস্ট দেখবেন, পাশ কাটিয়ে যাচ্ছে কি-না। মুখে কিছু বলছে না। আপনার মনে হচ্ছে, তৃতীয় ব্যক্তি ঢুকেছে সম্পর্কে। কোনো তৃতীয় ব্যক্তি নয়, মুখের দুর্গন্ধেই সরে যাচ্ছে প্রেম।






মন্তব্য চালু নেই