মেইন ম্যেনু

প্রেমিকের বিয়ের খবরে কলেজছাত্রীর আত্মহত্যার চেষ্টা

প্রেমিকের বিয়ের খবর পেয়ে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন সুমী খাতুন (২২) নামে এক কলেজছাত্রী। মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শুক্রবার সকালে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার ছোনগাছা ইউনিয়নের ঝিনাইগাঁতী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত কলেজছাত্রী সুমি ঝিনাইগাঁতী গ্রামের আব্দুল হালিমের মেয়ে ও সিরাজগঞ্জ ইসলামিয়া সরকারি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী।

আহত কলেজছাত্রীর চাচা আলম হোসেন ও খালা রোজিনা খাতুন জানান, একই গ্রামের শাহজাহান আলীর ছেলে ও কলেজছাত্র সুমনের সাথে দীর্ঘ পাঁচ বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল সুমির। প্রায় দুই বছর আগে সুমির পরিবারের লোকজন বিষয়টি জানতে পেরে বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে সুমনের বাবা শাহজাহান আলীর কাছে যায়। কিন্তু তিনি বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে তাদেরকে বাড়ি থেকে বের করে দেন।

এক পর্যায়ে গত সোমবার (৬ মার্চ) রাতে সুমির ঘরে গিয়ে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে সুমন। বাড়ির লোকজন বিষয়টি টের পেয়ে তাকে আটকে রেখে তার স্বজনদের খবর দেয়। খবর পেয়ে ছেলের বাবাসহ পরিবারের লোকজন বিয়ের আশ্বাস দিয়ে সুমনকে নিয়ে যায়। এরপর তারা বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন। নিরুপায় হয়ে মঙ্গলবার (৭ মার্চ) সুমী খাতুন বাদী হয়ে সুমনসহ তিনজনকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করে।

এদিকে, সুমন তার মামাতো বোনকে বিয়ে করেছে- শুক্রবার সকালে এমন সংবাদ শুনে সুমি খাতুন নিজ ঘরের দরজা বন্ধ করে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। বিষয়টি পরিবারের লোকজন টের পেয়ে দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে তাকে উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

এ বিষয়ে সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. রোকনুজ্জামান জানান, সুমি আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিল। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়া্য় অক্সিজেন দেয়া হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই