মেইন ম্যেনু

প্রেমে প্রতারণা করায় মেয়েটিকে যে শাস্তি দিল ছেলেটি, তা কল্পনার অতীত

প্রেম কমবেশি সকলের জীবনেই একবার না একবার আসে। কিন্তু সকলের জীবনে সেই প্রেম স্থায়ী হয় না। কাউকে কাউকে প্রেমে প্রতারণার সম্মুখীন হতে হয়। এমন ঘটনা ঘটলে অনেকের মনেই নিজের প্রতারক সঙ্গী বা সঙ্গিনীর প্রতি প্রবল প্রতিহিংসা জেগে ওঠে। সেই প্রতিহিংসা চরিতার্থ করা অবশ্য সবসময়ে সম্ভব হয়ে ওঠে না। কিন্তু সম্প্রতি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে প্রচার পাওয়া একটি খবরে নিজের সঙ্গিনীর উপর এক প্রতারিত প্রেমিকের ভয়াবহ প্রতিহিংসার ঘটনা সামনে এসেছে।

ব্রাজিলের রিও-তে বসবাস যুবক জুয়ান এবং যুবতী লিমার। দুজনেই বিজনেস ম্যানেজমেন্ট পড়ছেন একই কলেজে। জানা যাচ্ছে, কয়েক মাস আগে দু’জনের আলাপ প্রেমের দিকে গড়ায়। নিবিড় প্রেমে উষ্ণ কয়েকটা দিন কাটান দু’জনে। কথাবার্তা বিয়ের পরিকল্পনা পর্যন্ত এগিয়ে যায়। লিমাও বিয়ের ব্যাপারে যথেষ্ট আগ্রহ দেখিয়েছিলেন।

কিন্তু দিন কয়েক আগে জুয়ান-লিমার সম্পর্ক অন্যদিকে মোড় নেয়। জুয়ান জানতে পারেন, লিমা গোপনে অন্য এক যুবকের সঙ্গে মেলামেশা শুরু করেছেন, এবং সেই যুবককেও বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে লিমাকে জুয়ান প্রশ্ন করলে লিমা এড়িয়ে যান। এরপর জুয়ান অনেক চেষ্টা করেও লিমার সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেননি।

ক্ষুব্ধ জুয়ান পরিকল্পনা করেন, লিমাকে তাঁর কৃত প্রতারণার যোগ্য শাস্তি দেবেন। দিন কয়েক আগে তিনি তাঁর কয়েক জন সঙ্গীকে নিয়ে পৌঁছন একটি নাইটক্লাবে, যেখানে লিমা তখন তাঁর এক বন্ধুর সঙ্গে পার্টি করছেন। প্রথমে লিমার সঙ্গে প্রবল কথা কাটাকাটি হয় জুয়ানের। কিন্তু জুয়ানের যুক্তির সামনে নতি স্বীকার করতে হয় লিমাকে। লিমা মেনে নেন, তিনি অন্যায় করেছেন। এরপর জুয়ান বলেন, নিজের অপরাধ যখন শিকার করেছেন লিমা, তখন তিনি যে শাস্তি তাঁকে দেবেন, সেটাও তাঁকে মেনে নিতে হবে।

লিমা দেখেন, জুয়ানের প্রস্তাবে সম্মত হওয়া ছাড়া উপায় নেই। বাধ্য হয়ে তিনি সম্মত হন। তখন জনসমক্ষে লিমার মাথার চুল কামিয়ে নেড়া করে দেন জুয়ান। লিমার অপমানের মাত্রা আরও একধাপ বাড়াতে জুয়ানের এক সঙ্গী গোটা ঘটনাটির ভিডিও তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করে দেন।

ভিডিও-তে দেখা যাচ্ছে, লিমা উবু হয়ে বসে রয়েছেন, তাঁকে ঘিরে ধরে রয়েছেন কিছু মানুষ। এক জন ট্রিমার দিয়ে তাঁর মাথার চুল কামিয়ে দিচ্ছেন। লিমা বিনা প্রতিবাদে সবকিছু মেনে নিচ্ছেন নত মস্তকে। একবার দেখা গেল, একজন লিমার মাথার কাটা চুল মাটি থেকে তুলে নিয়ে আবার তার মাথায় ফেলে দিচ্ছেন।

ভিডিওটিতে মেয়েটির সম্মান রক্ষার্থে কাউকে এগিয়ে আসতে দেখা যায়নি। যাঁরা এই ভিডিও প্রচার করেছেন, তাঁদের দাবি, একটি প্রতারক মেয়ের প্রতি যে কারোরই সমবেদনা নেই, এই ভিডিও তারই প্রমাণ। অনেকে আবার বলছেন, মেয়েদের উপর পুরুষতান্ত্রিক নির্যাতনেরই একটি নিদর্শন এটি। ঘটনার পরে লিমা বা জুয়ান কী অবস্থায় রয়েছেন, তা অবশ্য জানা যায়নি।-এবেলা






মন্তব্য চালু নেই