মেইন ম্যেনু

প্লেনের কমোডে কেন পানি থাকে না, জানেন?

যারা প্লেনে ভ্রমণ করে থাকেন তারা খেয়াল করে দেখেছেন নিশ্চয়ই, প্লেনের কমোডে পানি দেয়ার কোনো বিষয় নেই। একটু তলিয়ে দেখলে এর কারণ জানতে পারবেন আপনিও। দেখে নেয়া যাক এর কারণ কি?

বাড়িতে যে ধরনের টয়লেট থাকে, তাকে গ্র্যাভিটি টয়লেটও বলা হয়। এসব কমোডের পানি মাধ্যাকর্ষণের উপরে নির্ভর করে। ফ্লাশ করলে পানি ছোট রিজার্ভার থেকে বেরিয়ে নিচের দিকে যায় এবং শেষ পর্যন্ত পাইপ বেয়ে গন্তব্যে পৌঁছে।

কিন্তু বিমানে এ সিস্টেম কাজ করে না। কেন পানি রাখা হয় না? বিমান মাঝআকাশে হামেশাই ছোট-বড় ঝাঁকুনি খায়। এ অবস্থায় কমোডের সঙ্গে ছোট জলাধার থাকলে প্রতিবারই সেখান থেকে পানি চলকে পড়ার সম্ভাবনা থাকে। তা হলে গোটা প্লেনটাই জলাকার হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

পরিবর্তে বিমানে ব্যবহার করা হয় ভ্যাকুয়াম সিস্টেম। পুরোটাই ভ্যাকুয়াম সিস্টেমে কাজ হয় বলে ‘ফ্লাশ’ করলে বিকট আওয়াজ হয়। ভ্যাকুয়াম সাকশনের জন্যই এ ধরনের আওয়াজ হয়। যে সামান্য নীলচে জলীয় পদার্থ পড়ে থাকে তা আদতে সামান্য স্যানিটাইজার।

বাকি থাকে একটিই প্রশ্ন। ময়লা যায় কোথায়? উত্তরও পেয়ে যাবেন। একটি ট্যাঙ্কে জমা হয়, যা প্রতি উড়ানের পরেই খালি করে নেয়া হয়।






মন্তব্য চালু নেই