মেইন ম্যেনু

ফতুল্লায় জমজমাট লড়াইয়ের অপেক্ষা

দীর্ঘ সাড়ে পাঁচ বছর পর ভারতের বিপক্ষে টেস্ট ম্যাচ খেলতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। বুধবার সিরিজের একমাত্র টেস্টে মুখোমুখি হবে দুই দল। ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে সকাল ১০ টায়।

সবশেষ ২০১০ সালের জানুয়ারিতে টেস্ট খেলেছিল বাংলাদেশ ও ভারত। মিরপুরে অনুষ্ঠিত ওই ম্যাচে ১০ উইকেটে হেরেছিল স্বাগতিকরা। অবশ্য ভারতের বিপক্ষে টেস্টে কখনোই জয়ের মুখ দেখেনি বাংলাদেশ। ভারতীয়দের বিপক্ষে এ পর্যন্ত সাতটি টেস্ট খেলে ছয়টিতে হার এবং একটিতে ড্র করেছে টাইগাররা।

তবে বাংলাদেশ ওয়ানডের মতো টেস্টেও এখন অনেকটা পরিণত দল। গত এপ্রিলে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো টেস্ট ড্র করে বাংলাদেশ। পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথমবার ওয়ানডে সিরিজও জেতে টাইগাররা। তাও আবার হোয়াইটওয়াশ করে। একটি টি-টোয়েন্টিতেও পাকিস্তানকে উড়িয়ে দেয় বাংলাদেশ। ফলে ভারতের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে পাকিস্তান সিরিজ থেকে অনুপ্রেরণাই পাচ্ছেন সাকিব-তামিম-মুশফিকরা।

পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্টে দারুণ ব্যাটিং করেছেন বাংলাদেশের দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও ইমরুল কায়েস। তরুণ তুর্কি সৌম্য সরকার বড় ইনিংস খেলতে না পারলেও মন্দ করেননি। সাকিব আল হাসানও কম যাননি। প্রথম টেস্ট আঙুলে চোট পাওয়ায় অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম অবশ্য খুব একটা সুবিধা করতে পারেননি। তবে ভারতের বিপক্ষে ভালো করতে বদ্ধপরিকর মুশফিক। পাকিস্তান সিরিজের মতো ভারতের বিপক্ষে জ্বলে উঠতে পারেন তামিম-ইমরুলরা। আর মাত্র ৭ রান করলে হাবিবুল বাশারকে ছাড়িয়ে টেস্টে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হবেন তামিম ইকবাল।

আঙুলের চোট এখনো পুরোপুরি সেরে না ওঠায় ভারতের বিপক্ষে শুধু ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতে পারেন মুশফিক। সেক্ষেত্রে অভিষেক হতে পারে উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান লিটন দাসের। এ ছাড়া ইনজুরিতে সিরিজ থেকে ছিটকে পড়া মাহমুদউল্লাহর বদলে স্কোয়াডে আসা নাসির হোসেনের একাদশে থাকার সম্ভাবনা প্রবল।

বাংলাদেশের পেস বোলিংয়ের নেতৃত্ব দেবেন রুবেল হোসেন। তার সঙ্গে দেখা যেতে পারে মোহাম্মদ শহীদ অথবা আবুল হাসান রাজুকে। স্পিনে তাইজুল ইসলামের সঙ্গে একাদশে থাকতে পারেন জুবায়ের হোসেন। এ ছাড়া সাকিব তো আছেনই।

অপরদিকে বিরাট কোহলির নেতৃত্বে মাঠে নামতে যাচ্ছে ভারত। টেস্ট র‍্যাংকিংয়ে তিন নম্বরে থাকা ভারতের ব্যাটিং লাইনআপ বেশ শক্তিশালী। ওপেনিংয়ে রয়েছেন মুরলি বিজয় ও শিখর ধাওয়ান। এরপর একে একে চেতেশ্বর পূজারা, অজিঙ্কা রাহানে ও কোহলি। একাদশে থাকতে পারেন রোহিত শর্মাও।

দীর্ঘ দুই বছর পর ভারতের টেস্ট দলে ফিরেছেন স্পিনার হরভজন সিং। ভারতের স্পিন আক্রমণ সামলাবেন তিনি। তার সঙ্গে থাকবেন আরেক স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন। ভারত তিন স্পিনার নিয়ে খেললে একাদশে কর্ণ শর্মাকেও দেখা যেতে পারে। পেস বোলিংয়ের দায়িত্বে থাকবেন উমেশ যাদব, ইশান্ত শর্মা, বরুণ অ্যারুণরা।

এদিকে সফরে আসার আগেই ভারত অধিনায়ক কোহলি জানিয়েছেন, বাংলাদেশের বিপক্ষে জয় ভিন্ন অন্য কিছু ভাবছেন না তিনি। অপরদিকে ম্যাচের আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে টাইগার দলপতি মুশফিকও জানান, জয়ের জন্যই মাঠে নামবেন তারা। বাংলাদেশের লক্ষ্য জয় অথবা ড্র। সব মিলিয়ে ফতুল্লায় জমজমাট এক লড়াই অপেক্ষা করছে।






মন্তব্য চালু নেই