মেইন ম্যেনু

ফাইনালেই সর্বনাশ হলো ডি মারিয়ার

কোপা আমেরিকার ফাইনালে মাঠে নামার আগে চিলির বিপক্ষে জিতে কিংবদন্তী হওয়ার কথা জানিয়েছিলেন অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া। চলতি টুর্নামেন্টে অসাধারণ ফর্মেও ছিলেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড এই তারকা। তাই শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে তার কাছ থেকে দারুণ কিছুর প্রত্যাশা ছিল আর্জেন্টাইন ভক্তদের। কিন্তু সেটা আর দিতে পারলেন কই ? রোববার ভোরে চিলির বিপক্ষে ম্যাচ শুরুর আধঘন্টার মধ্যেই হ্যামিস্ট্রিংয়ে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে ২৭ বছর বয়সী তারকাকে।

ইংলিশ লিগের ক্লাব ম্যানইউর হয়ে গতবার নিষ্প্রভ একটি মৌসুম কাটিয়েছেন ডি মারিয়া। কিন্তু মৌসুম শেষে দেশের জার্সিতে আবারো স্বরূপে দেখা গেছে তাকে। আর্জেন্টিনাকে কোপা আমেরিকার ফাইনালে তুলতে প্যারাগুয়ের বিপক্ষেও দুটি মূল্যবান গোল করেছেন তিনি। তাই ফাইনালে তার সেরাটার প্রত্যাশায় ছিল দলটির ভক্তরা।

প্রথমার্ধের ২৯ মিনিটও তখন গড়ায়নি। আর্জেন্টাইন সমর্থকদের আশঙ্কার পারদ চড়া শুরু হয়ে গেল। হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া মাঠের বাইরে চলে গেলেন ঠিক তখনই। পুরো সময় জুড়ে মাঠে থাকতে পারলে হয়তো ভিন্ন কিছুর জন্ম দিতে পারতেন ম্যানইউ এই তারকা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত টাইব্রেকারে দলের স্বপ্ন ভঙ্গের দৃশ্য মাঠের বাইরে বসেই দেখতে হয়েছে তাকে।

এই ইনজুরির কারণেই ব্রাজিল বিশ্বকাপের ফাইনালে আর্জেন্টিনার বিখ্যাত আকাশি-সাদা জার্সি গায়ে জড়াতে পারেননি ডি মারিয়া। এবার কোপার ফাইনালে সুযোগ পেয়েও শেষপর্যন্ত যেতে পারেননি তিনি। রিয়াল মাদ্রিদ ছাড়ার পর নতুন ক্লাব ম্যানইউতে গত মৌসুমটি একপ্রকার ইনজুরির মধ্য দিয়েই কেটেছে তার। গত নভেম্বরে হালসিটির বিপক্ষে পাওয়া কুঁচকির চোট কাটিয়ে উঠতে এখনো রীতিমত যুদ্ধ করছেন তিনি। আর নতুন করে পাওয়া এই হ্যামিস্ট্রিংয়ের চোট আগামী মৌসুমে বেশ ভোগাতে পারে আর্জেন্টাইন উইঙ্গারকে।






মন্তব্য চালু নেই