মেইন ম্যেনু

ফাইনালে মুস্তাফিজের খেলতে ‘বাধা’ নেই

চোটের কারণে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বাঁচা-মরার লড়াইয়ে মাঠে নামতে পারেননি মুস্তাফিজুর রহমান। মুস্তাফিজের অভাব ঠিকই টের পেয়েছে হায়দরাবাদ।

তার পরিবর্তে মাঠে নামা নিউজিল্যান্ডের পেসার ট্রেন্ট বোল্ট তেমন একটা ভালো করতে পারেননি। ৪ ওভারে ১ উইকেট পেলেও দিয়েছিলেন ৩৯ রান।

সেখানে টানা ১৫ ম্যাচ খেলে ১৬ উইকেট নেওয়া মুস্তাফিজ বেশিরভাগ ম্যাচেই বিশেষ কিছু করে দেখিয়েছেন। ডেথ ওভারে দারুণ বোলিং করে ম্যাচ জিতিয়েছেন, রানের চাকা থামিয়ে রেখেছেন, গুরুত্বপূর্ণ উইকেট নিয়েছেন। এ কারণে ট্রেন্ট বোল্টের থেকে এগিয়ে ‘দ্য ফিজ’।

মুস্তাফিজের দল আজ রাতে আইপিএলে প্রথমবারের মতো ফাইনাল খেলতে মাঠে নামবে। বেঙ্গালুরুতে তাদের প্রতিপক্ষ রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। এই বেঙ্গালুরুর বিপক্ষেই নিজেদের প্রথম ম্যাচ খেলেছিল তারা। রোববারের ফাইনালে মাঠে নামার আগে সুসংবাদ হায়দরাবাদ শিবিরে। ফাইনালে মাঠে নামতে কোনো বাধা নেই মুস্তাফিজুর রহমানের।

বল হাতে দৌড়াতে কোনো সমস্যা অনুভব করছেন না বাঁহাতি এ পেসার। তাই তাকে একাদশে রেখেই দল সাজাতে পারবে হায়দরাবাদ। গত শুক্রবার হ্যামস্ট্রিংয়ে টান লাগায় ম্যাচ খেলতে পারেননি মুস্তাফিজ। মুস্তাফিজ যোগাযোগ করেছিলেন বাংলাদেশ দলের ফিজিও বায়েজিদুল ইসলাম খানের সঙ্গে। নিজের ইনজুরি নিয়ে কথা বলেছেন।

রোববার দুপুরে রাইজিংবিডিকে বায়েজিদুল ইসলাম বলেন, ‘আমার সঙ্গে মুস্তাফিজের গতকাল ফোনে কথা হয়েছিল। সে আমাকে জানিয়েছে এই মুহূর্তে কোনো ব্যথা অনুভব করছে না। ভালো আছে। তার ইনজুরি নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার মতো কিছু নেই।’

ফাইনাল খেলতে কোনো সমস্যা হবে কি না? এমন প্রশ্নের উত্তরে বিসিবির ফিজিও বলেন, ‘সে আমাকে যেটা জানালো তাতে কোনো সমস্যা দেখছি না। বাকিটা ও নিজেই ভালো বুঝতে পারবে।’

হায়দরাবাদের আজ মুস্তাফিজকে চাই-ই-চাই। দুই দলের প্রথম দেখায় এবি ডি ভিলিয়ার্স ও শেন ওয়াটসনের উইকেট নিয়েছিলেন মুস্তাফিজ, শেষ দেখায় নিয়েছিলেন বিরাট কোহলির উইকেট। আজ সেরকমই কিছু করে দেখাবেন মুস্তাফিজ, এমনটাই প্রত্যাশা ক্রিকেটপ্রেমিদের!






মন্তব্য চালু নেই