মেইন ম্যেনু

ফিটনেস বিহীন লঞ্চ : যে কোন সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দূর্র্ঘটনা

ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার হাকিমুদ্দিন লঞ্চ ঘাট দিয়ে প্রতিদিন হাকিমুদ্দিন টু আলেকজেন্ডার নৌ রুট ডেজ্ঞারজোন থাকা সত্যে ও নিষেধাজ্ঞান অমান্য করে প্রতিনিহত ফিটনেস বিহীন ঝুকিপুর্ণ লঞ্চ চলছে। এ রুটের ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কোন ভুমিকা নেই এবং বিষয়টি যেন দেখার কেউ নেই। প্রতিদিন বহুযাত্রীরা শুধু মহান আল্লাহ তালার উপর ভরসা করে উত্তাল মেঘনা পাড়ি দিচ্ছে জীবনের ঝুকি নিয়ে ।

স্থানীয়দের দেওয়া তথ্য সূত্রে জানাযায়, হাকিমুদ্দিন লঞ্চ ঘাট থেকে আলেকজেন্ডার নৌ রুটে অবৈধভাবে লঞ্চ চলাচল করছে। কিছু অসাধু ব্যক্তিরা জনসাধারনের জীবনের কথা চিন্তা না করে আয় করছে লক্ষ লক্ষ টাকা। এসব কারনেই প্রায় প্রতি বছরই কোন না কোন রুটে লঞ্চ ও ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটছে ।

লঞ্চ ও ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটলেও কোন সঠিক তদন্ত পর্যন্ত হচ্ছে না বলে জানান স্থানীয়রা । বিআইডব্লিউটি সূত্রে মতে উত্তাল নদীবেষ্টিত ডেঞ্জার জোন হিসেবে ভোলা সহ উপকুলীয় প্রায় ২৫০ কি.মি. এলাকা প্রতি বছরে ১৫ ইং মার্চ থেকে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত সি ট্রাক নির্ভর যান ছাড়া সকল ধরনের যাত্রীবাহী নৌ-যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও এসবের তোয়াক্কা করছেনা হাকিমদ্দিন টু আলেকজেন্ডার কতৃপক্ষ ।

তারা প্রশাসনের চোখে ফাকি দিয়ে সাধারন যাত্রীদেরকে করে এ অবৈধ কার্যক্রম চালিয়ে আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে গেছে। কিছু অসাধু ব্যবসায়ীরা প্রশাসন ম্যানেজ করার নাম করে প্রতি যাত্রী কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়সহ যাত্রীদের হয়রানী করার একধিক অভিযোগ রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে ।

অপরদিকে কোন কোন সচেতন ব্যক্তি যদি অবৈধ লঞ্চ চলাচলের বিরুদ্ধে কথা বললে, কিছু অসাধু ব্যক্তি ক্ষমতাসীন নেতার দাপট দেখাচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে ।

একাধিক যাত্রীরা জানায়, ইলিশা টু মজুচৌধুরীর হাট ফেরী চলাচল না করার কারনে আমাদেরকে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে জীবনের ঝুকি নিয়ে, আল্লার উপর ভরশা রেখে এই উত্তাল মেঘনা পাড়ি দিতে হয় ।

এ ব্যপারে হাজি মোস্তাফা নেভিগেশন কোং লঞ্চ মালিকের ছেলে মো: বাবুল জানান,আমরা অতিরিক্ত ভাড়া নিলেও জন প্রতি ৬০ টাকা দিতে হয় প্রশাসনকে ম্যানেজ করার জন্য।

এ ব্যপারে বিআইডব্লিউটি এর ভোলা ট্রাফিক কর্মকর্তা মো: নাসিম আহাম্মেদ জানান, কোষ্টগার্ডকে বিষয়টি অবগত করে চিঠি দেওয়া আছে । প্রয়োজনে মোবাইল কোর্ট পরিচালনার মাধ্যমে অবৈধ নৌ -যানের বিরুদ্ধে আইন গত ব্যবস্থা নেওয়া হবে । এসব অসাধু কর্মকান্ডের সাথে হাকিমউদ্দিনের উজ্জল হাওলাদার ,রামগতির রকিব জরিত বলে জানান তিনি।

অবৈধ লঞ্চ চলাচল বন্ধসহ জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে এমনটাই প্রত্যশা করছেন সচেতন মহল ।






মন্তব্য চালু নেই