মেইন ম্যেনু

ফুটবল মাঠে ভারতের মুসলিম মেয়েরা

ভারতের মুম্বাইয়ের শহরতলীর একটি মাঠে ফুটবল খেলছে একদল কিশোরী মেয়ে। তারা সবাই মুসলিম পরিবার থেকে আসা, সমাজের বাধা ভাঙ্গতে তারা ফুটবলকেই বেছে নিয়েছে।

নাজনীন নামের এক কিশোরী বিবিসিকে বলছিল, প্রথম যখন আমরা ফুটবল খেলতে আসি, আমাদের স্কুলের ছেলেরাই আমাদের বাধা দিয়েছিল। তারা বলতো, মেয়েদের এসব খেলতে নেই। আমাদের প্রতিবেশীরাও নানা কথা শুনিয়েছে।

বোরকা আর হিজাব পড়ে এলেও মাঠের একপাশের রুমে তারা সেগুলো খুলে রাখে। এরপর জুতা পড়ে মাঠে খেলতে নামে।

এই মুসলিম মেয়েরা মুম্বাইয়ের মুসলিম অধ্যুষিত একটি এলাকা থেকে এসেছে। সেখানকার মেয়েদের ছোটবেলা থেকেই নানা নিয়মকানুনের মধ্যে বড় হতে হয়।

তাদের কাছে ফুটবলে লাথি মারা যেন, সামাজিক বাধাগুলোকেই আঘাত করার মতো, বলছিল একজন খেলোয়াড়।

একটি বেসরকারি সংস্থার উদ্যোগে এই কিশোরীরা ফুটবলের জগতের সঙ্গে পরিচিত হয়ে উঠছে।

তাদের কোচ সাবা পারভিন বলছিল, প্রথম এক বছর ফুটবল খেলার কথা আমি কাউকেই বলতে পারিনি। যখন প্রথম ট্রফি জিতলাম, তখন ঘরে গিয়ে মাকে ফুটবল খেলার কথা জানালাম।

এই কিশোরী মেয়েদের কাছে ফুটবল শুধুমাত্র একটি খেলা নয়, এটি তাদের মুক্তির একটি মাধ্যম।






মন্তব্য চালু নেই