মেইন ম্যেনু

ফুলবাড়ীতে দেড় বছরের শিশু হত্যার ৩দিনেও রহস্য উদঘটন হয়নি

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে দেড় বছরের এক শিশুর নির্মম হত্যার ঘটনার ২দিন অতিবাহিত হলেও পুলিশ হত্যাকান্ডের কোন রহস্য উদঘটন করতে পারেনি। ফুলবাড়ীতে এমন ঘটনা ইতিপূর্বে ঘটেনি বিধায় ঘটনার পর থেকে পুরো শহরে চলছে আলোচনা আর গুঞ্জন।

উল্লেখ্য, যে পৌর শহরের উত্তর সুজাপুর মহল্লার প্রফেসর পাড়ার মাহাবুব মন্ডলের দেড় বছরের শিশু সন্তান আলী হোসেন গত শনিবার বিকেলে নিখোঁজ হয়। নিখোঁজের ১ দিন পর গত রোববার সকাল ৭টায় আলী হোসেনের মৃতদেহ বাড়ীর পাশের একটি প্রচীর সংলগ বালির স্তুপে পাওয়া যায়। তার দু’পা ও হাত বের হয়ে থাকায় প্রতিবেশীরা দেখতে পেয়ে থানায় খবর দেয়। গত রোবাবার সকাল ৮টায় অর্ধ বালুচাপা দেয়া অবস্থায় মৃত দেহটি উদ্ধার করে ফুলবাড়ী থানা পুলিশ।

ফুলবাড়ী থানার ওসি মোস্তাক আহম্মেদ জানান, সকাল ৭টায় স্থানীয় উত্তর সুজাপুর প্রফেসরপাড়া গ্রামের ডাড়ারপাড় নামক স্থানে অর্ধ মাটি চাপা দেয়া অবস্থায় শিশু আলী হোসেনের মৃত দেহ দেখতে পেয়ে স্থানীয় বাসীন্দারা থানায় খবর দিলে পুলিশ মৃত দেহটি উদ্ধার করে দিনাজপুর মর্গে প্রেরন করে। তদন্ত অব্যাহত রয়েছে আশা করা যায় শীঘ্রই খুনের রহস্য উদঘটন করতে পারবো আমরা।

স্থানীয় বাসীন্দারা ও শিশুটির পরিবার সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার বিকেলে শিশুটি নিখোঁজ পর তার পরিবারের পক্ষ থেকে রাতে শহরে মাইকিং করে শিশুটির সন্ধান চাওয়া হয়। এর পরের দিন রোববার সকাল ৭টায় শিশুটির পিতার বাড়ীর পিছনে মাটি চাপা দেয়া অবস্থায় মৃতদেহ উদ্ধার হয়। এই ঘটনায় শিশু আলী হোসেনের পিতা মাহবুব বাদি হয়ে ফুলবাড়ী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

এদিকে, মাত্র দেড় বছরের শিশুর নির্মম হত্যাকান্ডের ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। অত্র এলাকার পৌর কাউন্সিলর ময়েজ উদ্দিন জানান, ইতিপূর্বে ফুলবাড়ীতে শিশু হত্যার ঘটনা কোনদিন ঘটেনি। ফলে এলাকার শোকাহত মানুষ একদিকে যেমন ভীত অন্যদিকে তেমনি তাদের শিশুদের নিয়ে আতংকিত হয়ে পড়েছেন। একই কথা বলেন মহিলা কাউন্সিলর তনজুয়ারা বেগম। তারা এই হত্যা কান্ডের সাথে জড়িতদের শাস্তি দাবী করেন।






মন্তব্য চালু নেই