মেইন ম্যেনু

ফেয়ারনেস ক্রিম ব্যবহার করছেন? সাবধান! হতে পারে ক্যানসারের আশঙ্কা…

নিজেকে চটজলদি সুন্দর কিংবা সুন্দরী করে তুলতে কে না চায়৷ তার ওপর টেলিভিশনের পর্দায় রয়েছে হাজারো ফেয়ারনেস ক্রিমের বিজ্ঞাপণ৷ কোনটার বিজ্ঞাপন করছেন বলিউড কাঁপানো হিরোইন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, কোনটায় আবার স্বয়ং কিং খান নিজের ব্যক্তিত্ব ও রূপের ছাটায় আকর্ষণ করছে সাধারণকে৷ ফলে নিজেকে আকর্ষণীয় করে তোলার এই হাতছানি থেকে দূরে থাকতে না পেরে ঝাঁপিয়ে পড়েন বিষাক্ত ফেয়ারনেস ক্রিম ব্যাবহারের দিকে৷ নিজেরই অজান্তে তাঁরা ডেকে নিয়া আসেন ক্যানসারের মতো মারণ রোগকে৷

অবাক হলেও এটাই সত্যি৷ সেন্টার অব সায়েন্স অ্যান্ড এনভাইরোমেন্ট(সিএসই)র দূষণ নজরদারি বিভাগের তথ্য অনুযায়ী ৪৪ শতাংশ ফেয়ারনেস ক্রিমে রয়েছে পারদ৷ যা মানুষের স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে ক্ষতিকারক৷ শুধু তাই নয় লিপস্টিকে রয়েছে ৫০ শতাংশ ক্রোমিয়াম ও ৪৩ শতাংশ নিকেল৷ বিষেশজ্ঞদের মতে, ক্রোমিয়াম হল ক্যানসারের অন্যতম কারণ৷

সিএসই’র প্রধান অধিকর্তা সুনিতা নারায়ণ একটি সংবাদ সংস্থাকে জানিয়েছেন, প্রসাধনী দ্রব্যে সামান্য পরিমাণের পারদ থাকে৷ কিন্তু ফেয়ারনেস ক্রিমে অতিরিক্ত পরিমাণে পারদ থাকে৷ যার ফলে কিছুদিন ফেয়ারনেস ক্রিম ব্যবহার করলে ত্বকের নানান সমস্যা দেখা দেয়৷ সিএসই’র মতে ভারতীয় বাজারে ৩২টি পারদ যুক্ত ফেয়ারনেস ক্রিম রয়েছে৷ এর মধ্যে ২৬টি মহিলাদের আর ৬টি পুরুষদের জন্যে৷ এছড়াও ৩০টি লিপস্টিক, ৮টি লিপ বাম ও ৩টি কোম্পানির অ্যান্টি এজিং ক্রিম রয়েছে৷ যেগুলিতে অতিরিক্ত পরিমাণের সীসা, ক্যাডমিয়াম , ক্রোমিয়াম ও নিকেল মিশ্রিত৷ তাই সাবধাণ৷ এই কেমিক্যালগুলি আপনার জন্য মারাত্মক রূপ নিতে পারে৷






মন্তব্য চালু নেই