মেইন ম্যেনু

ফের পয়েন্ট হারাল চেলসি

নিজেদের মাঠে ওয়াটফোর্ডের সঙ্গে ২-২-এ ড্র করে ফের পয়েন্ট হারাল শিরোপাধারী চেলসি। নিজেদের মাঠে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ফুটবল খেললেও গোলের পরিষ্কার সুযোগ তৈরি করতে পারছিল না গাস হিডিংকের শিষ্যরা। তবে উইলিয়ানের কর্নারগুলো ভীতি ছড়াচ্ছিল অতিথি শিবিরে। এমনই একটি কর্নার থেকে ৩২তম মিনিটে এগিয়ে যায় চেলসি।

ডান দিক থেকে উইলিয়ানের কর্নার খুঁজে পায় জন টেরিকে। চেলসি অধিনায়কের হেড একজনের পিঠে লাগলে পেয়ে যান সুযোগসন্ধানী কস্তা। তার ভলি জালে যাওয়া ফেরাতে পারেননি ওয়াটফোর্ড গোলরক্ষক।

চেলসির মুখোমুখির হওয়ার আগে টানা চার ম্যাচ জেতা ওয়াটফোর্ড সমতা ফেরাতে বেশি সময় নেয়নি। তবে এতে বড় ভূমিকা ছিল চেলসি ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার নেমানিয়া মাতিচের। কর্নার থেকে উড়ে আসা বল হাতে লাগান তিনি। পেনাল্টির সিদ্ধান্ত নিতে মোটেও দেরি করেননি রেফারি।

পুরো মৌসুম জুড়ে অধারাবাহিক চেলসির বিপদ বাড়িয়ে দ্বিতীয়ার্ধে ওয়াটফোর্ডকে এগিয়ে নেন ওডিয়ন ইঘালো। নাইজেরিয়ার এই ফরোয়ার্ডের শট গ্যারি ক্যাহিলের পায়ে লেগে গোলরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে জালে জড়ায়।

আরেকটি হারের শঙ্কায় পড়া চেলসির ত্রাতা কস্তা। এই গোলে দারুণ অবদান রয়েছে ব্রাজিলের মিডফিল্ডার উইলিয়ানের। ক্রস না করে বুদ্ধিদীপ্ত এক পাস দেন তিনি। অফ সাইড ফাঁদ ভেঙ্গে সঙ্গে লেগে থাকা খেলোয়াড়কে ফাঁকি দিয়ে বল জালে পাঠান ব্রাজিলে জন্ম নেওয়া স্পেনের স্ট্রাইকার কস্তা।

সমতা আনার পর এগিয়েও যেতে পারতো চেলসি। কিন্তু দলকে তিন পয়েন্ট এনে দেওয়ার সুবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া করেন অস্কার। ঠিক মতো পেনাল্টি শট নিতে পারেননি এই মিডফিল্ডার। বারের অনেক ওপর মারেন তিনি।

একের পর পর এক বাজে পারফরম্যান্সে কারণে জোসে মরিনিয়োকে ছাঁটাই করে চেলসি। তার জায়গায় অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হয়ে আসা হিডিংকেরও শুরুটা ভালো হল না।

ওয়াটফোর্ডের সঙ্গে ড্র করে ১৮ ম্যাচে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে ১৫ নম্বরে রয়েছে চেলসি। সমান ম্যাচে ২৯ পয়েন্ট নিয়ে সাত নম্বরে রয়েছে ওয়াটফোর্ড।

দিনের অন্য ম্যাচে রাহিম স্টার্লিং, ইয়াইয়া তুরে, উইলফ্রায়েড বনি ও কেভিন ডি ব্রুইনের গোলে নিজেদের মাঠে সান্ডারল্যান্ডকে ৪-১ গোলে হারায় ম্যানচেস্টার সিটি। ১৮ ম্যাচে ৩৫ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে মানুয়েল পেল্লেগ্রিনির দল।

ক্রিস্টিয়ান বেনটেকের একমাত্র গোলে লেস্টার সিটিকে হারিয়েছে লিভারপুল। এই জয়ে ২৭ পয়েন্ট নিয়ে আট নম্বরে রয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই