মেইন ম্যেনু

ফের বাংলাদেশে আসতে পারেন তারানকো

বাংলাদেশের চলমান রাজনৈতিক সংকট মোকাবেলায় জাতিসংঘের সহকারী মহাসচিব অস্কার ফার্নান্দেজ তারানকো আবারো বাংলাদেশ সফর করতে পারেন। সোমবার সদর দফতরে নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এক সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে জাতিসংঘ মহাসচিবের ডেপুটি মুখপাত্র ফারহান হক এ ইঙ্গিত দিয়েছেন।

একই সঙ্গে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় বৌদ্ধ ভিক্ষুকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় ক্ষোভ ও নিন্দা প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ।

জাতিসংঘের নিয়মিত ব্রিফিংয়ে বাংলাদেশি এক সাংবাদিক মহাসচিব বান কি মুনের ডেপুটি মুখপাত্রের কাছে জানতে চান, বাংলাদেশের দক্ষিণ পূর্বাঞ্চলীয় জেলা বান্দরবানে ৭৫ বছর বয়সী এক বৌদ্ধ ভিক্ষুকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। বাংলাদেশে এ ধরনের ঘটনা অহরহই ঘটছে। মাত্র একদিন আগেই এ ঘটনা ঘটেছে।

অন্যদিকে, সরকার বাংলাদেশের প্রধান বিরোধী দলীয় নেত্রী ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাদের মামলা করছে। তাদের বিরুদ্ধে শতাধিক মামলা দায়ের হয়েছে।

ওই সাংবাদিক ফারহান হকের কাছে আরো প্রশ্ন করে বলেন, জাতিসংঘ মহাসচিব স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠা ও অংশগ্রহণমূলক অবাধ নির্বাচন অনুষ্ঠান ও বাংলাদেশকে সঠিক পথে নিয়ে আসার জন্য অস্কার ফার্নান্দেজ তারানকোকে সংযুক্ত করেছিলেন। তিনি কী এ কাজ এখনো করছেন।

দীর্ঘ এই প্রশ্নের জবাবে বান কি মুনের ডেপুটি মুখপাত্র ফারহান হক বলেন, আপনি জানেন তিনি শান্তি রক্ষা-সংক্রান্ত কার্যালয়ের প্রধানের দায়িত্ব পালন করছেন এবং তিনি সেই কাজই করছেন। এর আগে তিনি বাংলাদেশ সফর করেছেন। পরিস্থিতি চাইলে তিনি আবারো তা করতে পারেন। শেষ পর্যন্ত তা নির্ভর করে, অবশ্যই, দলগুলোর পারস্পরিক বোঝাপড়ার ওপর। এবং আমরা সেটি করার জন্য তাদেরকে উৎসাহিত করি যাতে, একটি গ্রহণযোগ্য ও শান্তিপূর্ণ সমঝোতায় পৌঁছানো যায়।

তিনি বলেন, বিভিন্ন মানুষের হত্যাকাণ্ড, স্যেকুলার কর্মী, হিন্দু-বৌদ্ধসহ ধর্মীয় নেতাদের হত্যার ঘটনাগুলোকে গভীর উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছে জাতিসংঘ। মূলত এটি একটি পৃথক বিষয়, যেখানে আপনি বিভিন্ন সম্প্রদায়ের ওপর চরমপন্থীদের হামলার ঘটনা লক্ষ্য করেছেন। এসব বিষয়ে জাতিসংঘ মহাসচিব, মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটসের হাইকমিশনার উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। আমরা আজকেও আবার সেই উদ্বেগ প্রকাশ করছি।






মন্তব্য চালু নেই