মেইন ম্যেনু

ফেলনা লেবুও কাজে লাগে

বছরজুড়ে তো আছেই, রমজানে আরও বেড়ে যায় লেবুর কদর। ইফতারে শরবত থেকে শুরু করে রকমারি খাবারদাবারে অপরিহার্য অনুষঙ্গ এই লেবু। কিন্তু খাবারদাবারের ফেলনা অংশের মতোই লেবুর ছাল আর চিপে রাখা লেবু ব্যবহার করতে পারেন নানা কাজে। বিশেষ করে মাজা-ঘষা আর তৈজস পরিষ্কারে দারুণ কাজে লাগে লেবু। ফেলনা লেবু কাজে লাগিয়ে করতে পারেন এমন কিছু কাজের পরামর্শ তুলে ধরা হলো এখানে।

তৈলাক্ত ময়লা পরিষ্কার

হাঁড়ি-পাতিল বা থালা-বাসনে অতিরিক্ত তৈলাক্ত ময়লা রয়ে গেছে কিংবা অনেক দিন ধরে চুলার ওপরে জমা ময়লা পরিষ্কার করা হচ্ছে না। বাজারের ক্লিনার ব্যবহারের আগে লেবুর খোসা দিয়ে ময়লা পরিষ্কারের চেষ্টা করে দেখুন। শরবত বানানোর পর চিপে রস নিংড়ে নেওয়া লেবুগুলো নিন, টুকরো টুকরো লেবুতে একটু করে লবণ নিয়ে রাখুন। থালা-বাসন থেকে আলগা ময়লা যতটা সম্ভব পানি দিয়ে পরিষ্কার করে নিন আগে, এবার লেবু-লবণ দিয়ে মাজতে শুরু করুন। মাজা হয়ে গেলে একটা পুরোনো কাপড় দিয়ে ঘষে থালা-বাসন ধুয়ে নিন। চুলা এবং রান্নাঘরের টাইলসে জমে থাকা তৈলাক্ত ময়লাও এভাবে পরিষ্কার করতে পারেন। তবে খেয়াল রাখতে হবে অতিরিক্ত অ্যাসিডে ক্ষতি হয় এমন কিছু বেশি লেবু দিয়ে মাজা যাবে না।

চা-কফির কেটলি-পট মাজুন

চা-কফির কেটলি বা পটে জমা হতে থাকা লালচে দাগ পরিষ্কারে কাজেও লাগাতে পারেন চিপে রাখা লেবু। লেবুর ছাল ছোট ছোট টুকরো করে কেটে নিন। কেটলিতে পানি নিয়ে তাতে লেবুর ছালগুলো ফেলে একটু সেদ্ধ বসিয়ে দিন। পানি ফুটে গেলে ওই অবস্থাতেই ঘণ্টা খানেক রেখে দিন। এরপর ভালো করে ঘষে তা পরিষ্কার করুন। কফি পটের ক্ষেত্রে লেবুর সঙ্গে একটু লবণ এবং বরফ সঙ্গে নিয়ে খালি পটটা ভালো করে ঘষুন। দুই-তিন মিনিট মেজে পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন।

মাইক্রোওয়েভ ওভেন পরিষ্কারে

মাইক্রোওয়েভ ওভেনের ভেতরে জমে থাকা ময়লা-দাগ পরিষ্কারেও বাজারের রাসায়নিক ক্লিনার ব্যবহার না করে লেবু ব্যবহার করতে পারেন। মাইক্রোওয়েভের সেফ বোলের অর্ধেকটা পানি দিয়ে ভর্তি করে তাতে কিছু লেবুর ছাল ছেড়ে দিন। উচ্চ তাপে পাঁচ মিনিট সেদ্ধ করুন, যাতে মাইক্রোওয়েভের ভেতরের সবদিকে ফুটন্ত পানির বাষ্প ভালো করে ছড়িয়ে যায়। পানির বোল সরিয়ে নিয়ে একটা নরম তোয়ালে দিয়ে ভালো করে ভেতরটা মুছে নিন। এতে শুধু ময়লা দাগ নয়, মাইক্রোওয়েভের ভেতরে জমে থাকা গন্ধও দূর হবে।

ময়লার পাত্রটাও মাজুন

রান্নাঘরে খাবারদাবারের কাঁচা ময়লা জমিয়ে রাখার পাত্রটাও ঠিকঠাক পরিষ্কার করা চাই মাঝেমধ্যেই। নইলে তাতে আঁঁশটে গন্ধ জমে থাকতেই পারে। পানিতে কিছু লেবুর ছাল ফেলে দিয়ে একটু গরম করে নিন। ময়লার পাত্র থেকে ময়লা ফেলে দিয়ে গরম লেবু-পানি দিয়ে পাত্রটা ধুয়ে নিন।

তামা-কাঁসা বা স্টিলের পাত্র পরিষ্কারে

পিতল, তামা, কাঁসা বা স্টেনলেস স্টিলের পাত্র, থালাবাসন পরিষ্কারে লেবু ব্যবহার করতে পারেন। একটা লেবু আড়াআড়িভাবে অর্ধেকটা কেটে নিয়ে তাতে কিছুটা লবণ বা বেকিং পাউডার নিন। এবার লেবুটা নিয়ে পাত্র বা থালাবাসনের দাগ পড়া অংশে ভালো করে ঘষুন। মাজা-ঘষা হলে মিনিট দশেক তা ফেলে রাখুন। এবার পুরো পাত্রটা দুয়েকবার ঘষে ভালো করে ধুয়ে নিন। আপনার ধাতব পাত্রটা ঝকঝকে পরিষ্কার হয়ে যাবে।

পোকা-মাকড় দূরে রাখতে

অনেক পোকা-মাকড়ই লেবুর অ্যাসিড পছন্দ করে না। লেবু পাতলা করে টুকরো টুকরো করে নিন। রান্নাঘরের শেলফে, নানা ফাঁকফোকরে, মেঝেতে যেসব জায়গায় বেশি পোকা-মাকড়ের আনাগোনা থাকে, সেই সব স্থানে লেবুর টুকরোগুলো রেখে দিন। তবে পরদিন সকালে অবশ্যই এগুলো সরিয়ে পরিষ্কার করে নিতে হবে, নইলে লেবু পচে নোংরা হতে পারে।

কাটিং বোর্ড পরিষ্কারে

লেবুতে থাকা জৈবিক অ্যাসিডের ব্যাকটেরিয়া ধ্বংসের ক্ষমতা আছে। হাঁড়ি-পাতিল, থালা-বাসন মাজার মতোই আপনার রান্নাঘরের সবজি বা মাছ-মাংস কাটার বোর্ডটা পরিষ্কার করতেও লেবু ব্যবহার করতে পারেন। কাটিং বোর্ডটা ধুয়ে রাখার সময় তাতে অর্ধেকটা লেবু ভালো করে ঘষে মিনিট খানেক রেখে দিন। এবার ভালো করে পানি দিয়ে ধুয়ে রাখুন।

আর্দ্রতা বাড়াতে, সুবাস ছড়াতে

শীতকালে অনেক সময় ঘরবাড়ি বেশি শুষ্ক হয়ে যেতে পারে, আর্দ্রতা বেশি কমে যেতে পারে। এমন হলে এক কেটলি পানিতে কিছু লেবুর টুকরো ছেড়ে দিয়ে হালকা আঁচে তা চুলায় বসিয়ে দিন। পানি সেদ্ধ হতে থাকবে আর তা ঘরময় হালকা লেবুর সুবাস ছড়ানোর পাশাপাশি ঘরের আর্দ্রতাও বাড়িয়ে দেবে।






মন্তব্য চালু নেই