মেইন ম্যেনু

ফেসবুকে নারীরাই বেশি আত্মবিশ্বাসী

নিজেকে জাহির করতে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পুরুষের চেয়ে বেশি দৃঢ়তার সঙ্গে কথা বলেন নারীরা। যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের কয়েকটি দেশের পাঁচ বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল বিজ্ঞানীর গবেষণায় এ তথ্য উঠে এসেছে।

যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও অস্ট্রেলিয়ার মনোবিজ্ঞানি এবং কম্পিউটার বিজ্ঞান বিষয়ক গবেষকরা আগের একটি মানসিক গবেষণার সঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আচরণের তুলনা করতে একটি টিম গঠন করেন।

এজন্য ১৫ হাজার ফেসবুক স্ট্যাটাসের ভাষা বিশ্লেষণ করেন তারা। ২০০৯ সালে তার ওই গবেষণা শুরু করেন। দুই বছরে ফেসবুক অ্যাপস ব্যবহার করে তথ্য সংগ্রহ ও বিশ্লেষণ করেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পুরুষরা বেশি প্রভাবশালী হতে চায় এবং নারীদের তুলনায় নিজেকে বেশি জাহির করে বলে পূর্বের একটি গবেষণায় যে তথ্য উঠে এসেছিল তার সঙ্গে নতুন এই পর্যবেক্ষণ বিপরীতমুখী।

নতুন এ গবেষণায় বলা হয়েছে, ফেসবুকে পুরুষের চেয়ে বেশি আত্মবিশ্বাসী নারীরা। তারা যে কোনো বিষয়ে দৃঢ়তার সঙ্গে কথা বলেন। বিশেষ করে পার্টি, ড্যান্স, ক্লাব সম্পর্কিত আলোচনায় নারীদেরকে দৃঢ় প্রত্যয়ী দেখা গেছে বলে গবেষকরা বলছেন।

তবে অনলাইন ও অফলাইনে নারীদের আচরণে কোনো পরিবর্তন এসেছে কিনা সেবিষয়ে পরিষ্কার কোনো তথ্য জানাতে পারেননি এই গবেষকরা।

ইউনিভার্সিটি অব মেলবোর্নের সিনিয়র প্রভাষক ও গবেষক মার্গারেট কার্ন বলেন, ‘আমরা একটি ঐতিহাসিক পরিবর্তন দেখতে পাচ্ছি। নারীরা এখন অধিক নেতৃত্বশীলতার ভূমিকায় রয়েছেন এবং আরো আধিপত্যশীল ভাষা ব্যবহার করতে পারেন’।






মন্তব্য চালু নেই