মেইন ম্যেনু

ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে কারাগারে এক নারী

দেশের সেনাবাহিনীকে নিয়ে ফেসবুকে ব্যঙ্গ-বিদ্রুপাত্মক পোস্ট দেওয়ার অভিযোগে ৬ মাসের জেল হয়েছে মিয়ানমারের এক নারীর। আরটি.কম সোমবার এক প্রতিবেদনে জানায়, মিয়ানমারের অবিসংবাদিত নেত্রী, ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসি পার্টির সভাপতি অং সান সুচির পরিহিত লুঙ্গির (সারং) রঙের সাথে দেশটির সেনাবাহিনী প্রধানের ইউনিফর্মের রঙের মিল আছে মন্তব্য করে ফেসবুকে পোস্ট দেওয়ায় অক্টোবর মাসে গ্রেফতার হন ছাও সান্ডি টুন নামের ঐ নারী।

ছাওয়ের বিতর্কিত ফেসবুক পোস্টটি ছিল এরকম- “তুমি যদি মাকে এতটাই ভালোবাসো তবে মায়ের লুঙ্গি কেন মাথায় জড়াও না”।

ফেসবুকে এ পোস্ট করায় রাজনৈতিক কর্মীকে টেলিযোগাযোগের ৬৬ ধারা মোতাবেক মানুষকে মানহানি এবং হয়রানির অপরাধে ৬ মাসের কারাবাসের হুকুম দেয় আদালত। তবে ছাওয়ের আইনজীবী দাবি করেন, ছাও ফেসবুকে পোস্টটি দেননি। তার অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে। ছাও দাবি করেন অং সান সুচির বিকৃত একটি ছবিও ফেসবুকে শেয়ার হয়। দেশটির তথ্য মন্ত্রী ইয়ে টাটের স্ত্রীও ছবিটি শেয়ার করেন বলে দাবি করেছে ছাও।

ছাও বলেন, “তারা যদি আমাকে অপরাধী বলে তাহলে ইয়ে টাটের স্ত্রী অপরাধী।”

১৯৬২ সালের সামরিক বিদ্রোহের পর থেকে মিয়ানমারে সামরিক শাসন জারি আছে। ২০১১ সালে মিয়ানমার সেনাবাহিনী গণতান্ত্রিক সরকারের অভুত্থানের জন্য রাজনৈতিক সংস্কারের ঘোষণা দেয়। তবে সাম্প্রতিককালের সাধারণ নির্বাচন সত্ত্বেও ক্ষমতা কুক্ষিগত করে রেখেছে সামরিক সরকার।

সূত্র: বিজিআর.ইন






মন্তব্য চালু নেই