মেইন ম্যেনু

ফেসবুকে বান্ধবী বেশি বলে প্রেমিককে খুন করলো প্রেমিকা!

‘ও আর আমার সঙ্গে সময় কাটাত না, আমি যখনই ওর সঙ্গে কথা বলতে যেতাম তখনই দেখতাম ও ফেসবুক নিয়ে ব্যস্ত। রোজ নতুন নতুন মেয়েদের সঙ্গে বন্ধুত্ব করত।’প্রেমিককে ছুরি মেরে খুন করার আগে এটাই ছিল টেরি পালমারের শেষ ফেসবুক পোস্ট!

ল্যাঙ্কেস্টারে নিজের পার্লার চালাতেন টেরি। সেখানেই তাঁর সঙ্গে পরিচয় হয় ড্যামন সারসনের। এরপর তাঁদের বন্ধুত্ব ভালোবাসায় পরিণত হয়। ধীরে ধীরে ড্যামনের ওপর রাগ বাড়তে থাকে টেরির। এর কারণ একটাই, ফেসবুকের উপর ড্যামনের আসক্তি। টেরির দাবি, ‘নতুন নতুন মেয়েদের সঙ্গে বন্ধুত্ব করত ড্যামন। তাঁদের সঙ্গেই চ্যাট করে সময় কাটাত ও। আমাকে একদম সময় দিত না।’ অভিযোগ, রাগের চোটে প্রেমিককে ছুরি মেরে খুনই করে ফেলেন টেরি। ঘটনাচক্রে সেইসময় নিজের ফোনে মেসেজ চেক করছিলেন ড্যামন!

যদিও প্রথমে নিজের বিরুদ্ধে ওঠা সব অভিযোগ অস্বীকার করেন টেরি। পুলিশকে ফোন করে বলেন, দুর্ঘটনাবশত ছুরি লেগে গেছে ড্যামনের বুকে। পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে। তদন্তও শুরু হয়। আদালতের পক্ষ থেকে টেরির অভিযোগ নস্যাৎ করে দেওয়া হয়। প্রেমিককে খুনের দায়ে যাবজ্জীবনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে টেরিকে।






মন্তব্য চালু নেই