মেইন ম্যেনু

ফ্যাটযুক্ত যে ৬টি খাবার স্বাস্থ্যের জন্য ভাল

ওজন কমানোর জন্য ডায়েট করার সময় ফ্যাটযুক্ত সব ধরণের খাবার বাদ দিয়ে থাকেন। কিন্তু সবধরণের ফ্যাট খাবার বাদ দেওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ভাল নয়। কিছু কিছু ফ্যাটযুক্ত খাবার আছে যা শরীরের জন্য বেশ ভাল। এই ফ্যাটযুক্ত খাবারগুলো খাদ্যতালিকায় রাখা উচিত।

১। অ্যাভোকাডো

অ্যাভোকাডো উচ্চ ফ্যাটযুক্ত একটি খাবার। একে “বাটার পেয়ারস” বলা হয় ফ্যাটের কারণে। কিন্তু অ্যাভোকাডোয় মনোস্যাচুরেটেড ফ্যাট রয়েছে যা খারাপ কোলেস্টেরল হ্রাস করে হার্ট সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। একটি অ্যাভোকাডোতে ৩০ গ্রাম ফ্যাট রয়েছে। মাখনের পরিবর্তে অ্যাভোকাডো খেতে পারেন।

২। বিশুদ্ধ নারকেল তেল

মোটা হওয়ার ভয়ে মাখন, তেলের পরিবর্তে অনেকে অলিভ অয়েল খেয়ে থাকেন। অলিভ অয়েলের পরিবর্তে নারকেল তেল ব্যবহার করতে পারেন। বিশুদ্ধ নারকেল তেল শরীরের ভাল কোলেস্টেরল বৃদ্ধি করে।

৩। ডিম

প্রোটিনের অন্যতম উৎস ডিম। তাই ডায়েট করলেও প্রতিদিন একটি করে ডিম খাওয়ার চেষ্টা করুন। অনেকে ডিমের কুসুম বাদ দিয়ে শুধু সাদা অংশ খেয়ে থাকেন। সম্পূর্ণ একটি ডিমে ৫ গ্রাম ফ্যাট রয়েছে এরমধ্যে ১.৫ গ্রাম স্যাচুরেটেড ফ্যাট রয়েছে।

৪। কাঠবাদাম

এক আউন্স কাঠবাদামে (২৩টি কাঠবাদাম) ১৬০ গ্রাম ক্যালরি, ১৪ গ্রাম আনস্যাচুরেটেড ফ্যাট এবং ৬ গ্রাম প্রোটিন রয়েছে। এতে প্রচুর অ্যান্টি অক্সিডেন্ট এবং ভিটামিন ই, ফাইবার, রিবোফ্লাভিন, ম্যাগনেশিয়াম এবং ফসফরাস রয়েছে যা প্রতিদিনের ৪০% পুষ্টির চাহিদা পূরণ করে।

৫। কিছু মাছ

কিছু সামুদ্রিক মাছ যেমন স্যামন, সার্ডিন, টুনা ইত্যাদি মাছে প্রচুর ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড রয়েছে। American Heart Association এর মতে যারা সপ্তাহে কমপক্ষে দুইবার ওমেগা থ্রিযুক্ত মাছ খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।

৬। অলিভ অয়েল

অনেক পুষ্টিবিদগণ সাধারণ তেলের পরিবর্তে অলিভ অয়েল খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। অলিভ অয়েলে মনোস্যাচুরেটেড ফ্যাট রয়েছে যা খারাপ কোলেস্টেরল দূর করে। এছাড়া এতে ভিটামিন এ এবং ভিটামিন ই এবং ম্যাগনেশিয়াম রয়েছে যা হৃদরোগের ঝুঁকি হ্রাস করে।






মন্তব্য চালু নেই