মেইন ম্যেনু

ফ্যাশনে থাকবে হবু মায়েরাও

আপনার সংসারে আসতে যাচ্ছে নতুন সদস্য, মা হতে চলেছেন আপনি- ব্যাপারটি নিশ্চিত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নিশ্চয়ই জীবনটাই পালটে গেল! কিন্তু আপনার দৈনন্দিন ফ্যাশনেও যে আসবে বিরাট পরিবর্তন, তা নিয়ে ভেবেছেন কি? না ভেবে থাকলেও তেমন দুঃখ পাওয়ার দিন শেষ! যারা কদিন পর মা হতে চলেছেন, তাদের জন্য প্রচুর স্টাইল অপশন রয়েছে।

হবু মায়েরা আজকের প্রতিবেদন থেকে জেনে নিতে পারে কি করে এই সময়েও থাকবেন ফ্যাশনেবল।

– ঠিক সময়ে সঠিক পোশাকের কম্বিনেশন জানা থাকতে হবে। প্রেগনেন্সিতে সঠিক মাপের লেয়ারিং না করলে আপনাকে দেখাবে আরও মোটা। তাই শরীরের গঠন বুঝে সঠিক পোশান নির্বাচন করুন। কুর্তির সঙ্গে লেগিংস ও ছোট্ট স্কার্ফ পরতে পারেন। তাছাড়া টিউনিকের উপর সামার জ্যাকেট কিংবা শ্রাগ ট্রাই করতে পারেন। ঢিলাঢালা কোটি কিংবা শার্ট পরলে সামনের হুক খোলা রাখুন। যাতে আপনার হাঁসফাঁস না লাগে, সেটিও নজরে রাখুন।

– অনেক দাম দিয়ে প্রচুর মেটারনিটি ড্রেস কিনে এই সময়ে স্টাইল করার ভাবনা বাদ দিন। স্মার্ট শপিং করুন। কারণ এখন কেনা মেটারনিটি ড্রেস এরপর আপনার কোন কাজে আসবে না। তার চেয়ে বরং ঢিলাঢালা রঙিন পোশাক কিনুন। এখন এগুলো প্রেগনেন্সি টাইমে পরুন, পরে এগুলোই অলটার করে পরতে পারবেন।

– এ সময় কালারফুল পোশাক পরুন। এতে আপনার মন ভালো থাকবে। সেই সঙ্গে আপনার সন্তানও থাকে সুস্থ। এছাড়াও আপনার লুকেও থাকবে কনফিডেন্সের ছোঁয়া।

– হালকা রঙ থেকে দূরে থাকতে চেষ্টা করুন। এতে আপনার ফিগারের পরিবর্তন সহজেই চোখে পড়বে। সাদার চেয়ে গাঢ় রঙের প্রাধান্য দিন। স্ট্রাইপড পোশাককেও না বলুন এসময়।

– প্রেগনেন্সিতে জিনস একদম মানা। তবে শুরুর দিকে পরতে পারেন। শেষের দিকে পালাজ্জো কিংবা স্কার্ট পরুন। আরাম পাবেন।

– এছাড়াও এই সময়ে ট্রাই করুন ম্যাক্সি ড্রেস ও টিউনিক। ফ্লোরাল প্রিন্টকে প্রাধান্য দিন। ভি-নেক ও এ-লাইন ড্রেস মানাবে ভালো।






মন্তব্য চালু নেই