মেইন ম্যেনু

ফ্রান্সে কেউ না খেয়ে ঘুমাবে না

একজন ফরাসি কাউন্সিলর আরাশ ডেরাম্বার্শ খাবারের বর্জ্য স্ট্যাম্প আউট করার জন্য একটা ক্যাম্পেইনের সৃষ্টি করেছেন এবং ইউরোপীয় কমিশনের প্রধান ও জাতীয় নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন যে, তারা যেন একটি আইন পাশ করে, যাতে করে সুপারমার্কেটের অবিক্রীত খাবার-সমূহ দাতব্য প্রতিষ্ঠানে দেয়া হয়।

গত বৃহস্পতিবার ইউরোপীয় পার্লামেন্ট একটি রেজল্যুশন গ্রহণ করে, যেখানে তারা বিভিন্ন সুপারমার্কেট এবং অন্যান্য প্রতিষ্ঠানকে উৎসাহিত করবেন যেন তারা দরিদ্র এবং ক্ষুধার্তদের সাহায্য করে।

বল কমিশন প্রেসিডেন্ট জাঁ-ক্লদ জাঙ্কার এবং ইউরোপীয় নেতাদের আদালতে এখন এই আইন রয়েছে। ৫০০ মিলিয়ন মানুষের সামনে তাদের একটি ইতিহাস রয়েছে। তাদের দায়িত্বও বটে।

গত বছরের মে মাসে ফরাসি সরকার একটি আইন প্রণয়ন করে, যেখানে বলা হয় সকল সুপারমার্কেট তাদের অবিক্রীত খাবার অনাহারে থাকা মানুষদের দান করবে।

তারপরও কিছু দোকান ব্লিচ দিয়ে তাদের অবিক্রীত খাদ্য ধ্বংস করেছেন। তবে এবার নতুন আইনে বলা হয়েছে, যে সকল মার্কেট ৪০০ বর্গ মিটার এলাকা নিয়ে তৈরি তারা যদি তাদের খাবার ধ্বংস করে তাহলে তাদের ৭৫,০০০ পাউন্ড জরিমানার মুখে পড়তে হবে।

বৃহস্পতিবার, ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সদস্যরা একটি রেজল্যুশন নেন, যা খাদ্য বর্জ্য সংশোধনী শেষ মিনিটে উত্থাপন ও গৃহীত করা হয়েছে। অ্যাঞ্জেলিক ডেলাহায়ে ভোটের পর বলেন, ‘এটা ইউরোপে খাদ্য বর্জ্যের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করার প্রথম পদক্ষেপ’।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন, বছরে প্রায় ৮৯ মিলিয়ন টন খাবার নষ্ট করেন। যেখানে যুক্তরাজ্যের সর্বোচ্চ অবদান রয়েছে, যখন একটি আনুমানিক ১.৩ বিলিয়ন টন বিশ্বব্যাপী বার্ষিক নষ্ট হয়।

এই আইনের ফলে এখন অনেক অনাহারী খাবার পাবেন এবং খাবার নষ্ট করে পরিবেশও নষ্ট হবে না। এই আইন বিশ্বের সকল দেশের আমলে নেয়া উচিৎ।-সূত্র:ইন্ডিয়া টাইম্‌স।






মন্তব্য চালু নেই