মেইন ম্যেনু

বই পড়ার সময় বের করে নিন সহজ ৭ কৌশলে

বই পড়তে ভালোবাসেন? ছাত্র জীবনে প্রতিদিন বই পড়তেন? কিন্তু চাকরিজীবনে প্রবেশ করার পর এই প্রিয় সঙ্গীকে আর সময় দিতে পারছেন না। অফিস, বাসা সামলে ক্লান্ত, বই পড়বেন কখন? অথচ বই দিতে পারে আপনাকে একটুখানি অবসর। শত ব্যস্ততার মাঝে পড়ে ফেলুন প্রিয় বইটি। আর এই কাজটি করতে আপনাকে সাহায্য করবে এই কৌশলগুলো। কোন নিয়োগ পরীক্ষা থাকলে এই কৌশলগুলো ব্যবহার করে আপনি আপনার পড়ার সময়টি বের করে নিতে পারবনে।

১। পড়ার জন্য সময় নির্ধারণ করুন

দিনের একটি বড় সময় আমরা সোশ্যাল মিডিয়াতে ব্যয় করে থাকি। ফেইসবুকে চ্যাট, টুইটারে টুইট অথবা কাজের ফাঁকে সহকর্মীদের সাথে আড্ডা দেওয়া। এই সময়টিতে বই পড়তে পারেন। খুব বেশি সময় না দিতে পারেন দিনের ১৫ থেকে ২০ মিনিট দিন। দেখবেন পড়ার অভ্যাস আবার ফিরে চলে এসেছে।

২। একের অধিক বই পড়ুন

অনেকেই একটি সময় একটি বই পড়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। তবে একটি সময় একের অধিক বই পড়া আপনার সময় বাঁচিয়ে দিবে অনেকখানি। আপনি চাইলে একটি সময় নির্দিষ্ট করে নিতে পারেন বই পড়ার জন্য। তা হতে পারে রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে অথবা অফিস থেকে ফিরে সন্ধ্যার সময়টি।

৩। অনলাইন পড়ালেখা

আপনাকে যদি অনলাইনে বেশি সময় ব্যয় করতে হয়, তবে বইও পড়ার কাজটি আপনি অনলাইনে সেরে নিতে পারেন। অনলাইনে অনেক ওয়েব সাইট পাবেন যেখানে আপনার পছন্দের বইটি পেয়ে যাবেন। কাজের ফাঁকে সময় করে পড়ে নিন প্রিয় বইটি।

৪। ভ্রমণে

অফিসে যাতায়াতে আপনি কি পরিবহণ ব্যবহার করেন? বাস, রিকশা অথবা সিএনজি? অফিসে যাওয়ার সময়টিতে অনেকেই গান শুনেন থাকেন। গান শোনার পরিবর্তে বই পড়ুন। এই সময়টিতে অনলাইন থেকেও বই পড়তে পারেন।

৫। ৫০ পৃষ্ঠা কৌশল

আপনি বই পড়ার পৃষ্ঠা নির্দিষ্ট করে নিতে পারেন। যেমন ৫০ পৃষ্ঠা পর্যন্ত আজ পড়ে শেষ করবেন। হাতে খুব বেশি সময় না থাকলে অল্প করে লক্ষ্য নির্ধারণ করে নিতে পারেন। তা ১০ পৃষ্ঠা হতে পারে আবার ২০ পৃষ্ঠাও হতে পারে।

৬। পড়ার সঙ্গী খুঁজে ফেলুন

আপনার কর্মস্থলে কিছু কর্মী খুঁজে পাবেন যারা বই পড়তে ভালোবাসে। তাদের সাথে একটি গ্রুপ তৈরি করে নিতে পারেন। আড্ডায় বই পড়া নিয়ে গল্প করুন। বই আদান প্রদান করে নিতে পারেন। এই কাজটি আপনার পড়ার গতিকে বড়িয়ে দিবে।

৭। পড়ার গতি বৃদ্ধি করুন

অল্প সময়ে অধিক বই পড়তে চাইলে আপনার পড়ার গতি বৃদ্ধি করতে হবে। বইয়ের লাইনগুলো দ্রুত চোখ বুলিয়ে নিন। এক নিঃশ্বাসে কয়েকটি লাইন পড়ে ফেলার অভ্যাস তৈরি করুন।

এই কৌশলগুলো আপনার বই পড়ার অভ্যাসকে আবার ফিরিয়ে নিয়ে আসবে। পড়ার প্রতি তৈরি করবে আগ্রহ।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই