মেইন ম্যেনু

বক্তব্য ছাড়াই জয়কে নিয়ে সংবাদ প্রচার করায় বিবিসির দুঃখ প্রকাশ

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়কে নিয়ে সংবাদ প্রকাশের আগে তার বক্তব্য নিতে না পারায় দুঃখ প্রকাশ করেছে বিবিসি। মঙ্গলবার প্রতিষ্ঠানটির কমিউনিকেশন ম্যানেজার রাসমুসেল এক ই-মেইল বার্তায় এই দুঃখ প্রকাশ করেন।

এর আগে এই সংবাদ প্রচারের জন্য ক্ষমা চাওয়ার দাবিতে যুক্তরাজ্য শাখা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বিবিসির সদর দফতরের সামনে বিক্ষোভ করেন।

ইসরায়েলের ক্ষমতাসীন লিকুদ পাটির সদস্য মেন্দি এন সাফাদির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়ের বৈঠকের বিষয়ে খবর প্রকাশ করে বিবিসি বাংলা। গত ২৮ মে মেনদি সাফাদির উদ্ধৃতি দিয়ে ‘সাফাদির সাথে সজীব ওয়াজেদ জয়ের বৈঠক হয়েছিল’ শিরোনামে বিবিসি বাংলা বিভাগ সংবাদ ছেপেছিল। কিন্তু বিবিসির ওই প্রতিবেদনে সজীব ওয়াজেদ জয়ের কোনো বক্তব্য না থাকায় প্রতিবেদনটি নিয়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

সোমবার দুপুরে লন্ডনে বিবিসি প্রধান কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ। সমাবেশ শেষে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি সুলতান মাহমুদ শরীফ ও সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুকসহ যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বিবিসি বাংলা বিভাগের কাছে একটি স্মারকলিপি দেন। স্মারকলিপিতে বিবিসিকে দুঃখ প্রকাশ করে সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদকের অপসারণের দাবি জানিয়ে সাত দিনের সময়সীমা বেধে দেয় যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ।

বিবিসি জানিয়েছে, তারা বিবিসির কমিউনিকেশন বিভাগের অনুমতি ছাড়া কোনো বক্তব্য দিতে পারবে না।






মন্তব্য চালু নেই