মেইন ম্যেনু

বঙ্গবন্ধুর আগেই গণমাধ্যম শহিদের সংখ্যা ৩০ লাখ বলেছে

একাত্তরের ২২ ডিসেম্বর দৈনিক পূর্বদেশ-এর সম্পাদকীয়তে, বাহাত্তরের ৫ জানুয়ারি The Daily Observer, The Morning News, রাশিয়ার প্রাভদা পত্রিকার বাংলা সংস্করণের শিরোনামে ও ৯ জানুয়ারি দৈনিক বাংলার শিরোনামে মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশে ত্রিশ লাখ মানুষ শহিদ হওয়ার কথা উল্লেখ করা আছে।

সম্প্রতি বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া মুক্তিযুদ্ধে শহিদের সংখ্যা নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করার প্রেক্ষিতে জানতে চাইলে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর তুরিন আফরোজ এসব তথ্য জানান। তিনি বলেনÑ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭২ সালের ১২ জানুয়ারি ভাষণ দেওয়ার সময় শহিদের সংখ্যা ভুলবশত অতিরঞ্জিত করে ত্রিশ লাখ বলে ফেলেছেন বলে একটি অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। অথচ এর আগেও দেশি-বিদেশি বিভিন্ন গণমাধ্যমে শহিদের সংখ্যা ‘৩০ লাখ’ উল্লেখ করে সংবাদ পরিবেশন করা হয়েছিল।

প্রসঙ্গত পাকিস্তানের প্রতিরক্ষাবিষয়ক ওয়েবসাইট defence.pk-G প্রকাশিত ‘The Radical Truth : Teaching MPACUK the Forgoten Chapter of Pakistan’s History শীর্ষক নিবন্ধের তৃতীয় অনু”ছদে উল্লেখ করা হয় যে, ‘ওহ 1971, over 9 months, President Yahiya Khan and his military commanders with the aid of local collaborators commited mass atrocities on unarmed civilians, killed an estimated three million people
উদাহরণ দিয়ে তুরিন আফরোজ বলেনÑ স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র থেকে প্রচারিত চরমপত্র অনুষ্ঠানেই ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর এমআর আখতার মুকুল ত্রিশ লাখ শহিদের কথা উল্লেখ করেছিলেন।

এ সংক্রান্ত পত্রিকার কাটিংসহ বিভিন্ন তথ্য দিয়ে প্রসিকিউটর বলেনÑ ১৯৭১ সালে পাকিস্তানের হানাদার বাহিনী ও তাদের এ দেশীয় দোসরদের লক্ষ্যই ছিল ত্রিশ লাখ বাঙালিকে হত্যা করা। পাকিস্তানি আর্মিদের এক বৈঠকে ইয়াহিয়া খান বলেছিলেন, Kill 3 million of them and the rest will eat out of our hands. [Z_¨m~Î : (1) Robert Payne, Massacre : The Tragedy of Bangladesh and the Phenomenon of Mass Slaughter Throughout History (1972), c…ôv-50; (2) Debashish Roy Chowdhury, Indians are Bastard Any way, The Asia Times, 23 June, 2005]. এখানে সুস্পষ্ট যে, পাকিস্তানি বাহিনীর প্রথম থেকেই লক্ষ্য ছিল অন্তত ত্রিশ লাখ বাঙালি হত্যা করা।

সম্প্রতি এক নিবন্ধে তুরিন আফরোজ লিখেছেনÑ ১৯৭১ সালের ২১ ডিসেম্বর দৈনিক পূর্বদেশ পত্রিকার সম্পাদকীয়তে লেখা হয়Ñ ‘হানাদার দুশমন বাহিনী বাংলাদেশে প্রায় ত্রিশ লাখ নিরীহ লোক ও দুই শতাধিক বুদ্ধিজীবীকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে।’ ১৯৭২ সালের ৫ জানুয়ারি ঢাকার The Daily Observer এর শিরোনাম ছিল Pak Army Killed Over 30 Lakh People একই দিন The Morning News -এর শিরোনাম ছিল Over 30 Lakh Killed by Pak Force.

রাশিয়ার কমিউনিস্ট পার্টির মুখপত্র ‘প্রাভদা’ ১৯৭১ সালের ডিসেম্বর মাসেই বাংলাদেশে ত্রিশ লাখ শহিদের বিষয়টি প্রকাশ করে। এই প্রাভদার ইংরেজি সংস্করণে উল্লেখ করা হয় Over 30 lakh persons were killed throughout Bangladesh by the Pakisthani occupation forces during the last nine months. প্রাভদা পত্রিকাটির ১৯৭২ সালের ৫ জানুয়ারির বাংলা সংস্করণে শিরোনাম হয় ‘দখলদার বাহিনী বাংলাদেশে ত্রিশ লক্ষাধিক মানুষ হত্যা করেছে’।

আরও উদাহরণ দিয়ে প্রসিকিউটর বলেন ১৯৭২ সালের ৯ জানুয়ারি দৈনিক বাংলার ‘হুঁশিয়ার আন্তর্জাতিক চক্রান্ত শিরোনামের খবরে লেখা হয় দখলদার পাকিস্তানি বাহিনী বাংলাদেশে যে তান্ডব চালিয়েছে তাতে ৩৫ লক্ষাধিক বাঙালি প্রাণ হারিয়েছে। তাছাড়া গবেষক রওনাক জাহানও তার গবেষণায় ত্রিশ লাখ শহিদের সংখ্যা খুঁজে পেয়েছেন বলে নিবন্ধে লিখেন তুরিন আফরোজ।






মন্তব্য চালু নেই