মেইন ম্যেনু

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর নির্মাণে আগ্রহী জাপান

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর নির্মাণে আগ্রহ প্রকাশ করেছে জাপান সরকার।

সোমবার পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সঙ্গে মন্ত্রীর দপ্তরে এক সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হন বাংলাদেশে জাপানের রাষ্ট্রদূত মাসাতো ওয়াতানবি এবং জাইকার কান্ট্রি ডিরেক্টর মিকিও হাতাডেয়া।

বৈঠকে জাপানের রাষ্ট্রদূত একটি আধুনিক ও নান্দনিক আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর হিসেবে বঙ্গবন্ধু বিমান বন্দর স্থাপনে অর্থায়নের বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেন।

সাক্ষাতকালে জাপানের রাষ্ট্রদূত ও জাইকার কান্ট্রি ডিরেক্টর জাপানী অর্থায়নে চলমান বিভিন্ন প্রকল্পসহ মাতারবাড়ী প্রকল্প, সাবওয়ে লাইন ও সার্কুলার রোড এবং বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর প্রকল্প বাস্তবায়ন সংক্রান্ত বিষয়ে মতবিনিময় করেন।

এ সময় পরিকল্পনামন্ত্রী বাংলাদেশ ও জাপানের মধ্যে বিদ্যমান চমৎকার সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে বলেন, জাপান বাংলাদেশের এক অকৃত্রিম বন্ধু।

মন্ত্রী বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর নির্মাণে জাপান সরকারের সহযোগিতার প্রত্যাশ ব্যক্ত করেন।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে এ অঞ্চলের গেটওয়ে হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে অত্যাধুনিক সুবিধা সম্বলিত বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর প্রতিষ্ঠায় কাজ করছেন।

মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু বিমান বন্দর হবে একটি আধুনিক ও নান্দনিক আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর। প্রাচ্য ও পাশ্চাত্যের মধ্যে ট্রানজিট পয়েন্ট এবং দেশের পর্যটন বিশেষ করে ‘রিজিওনাল ট্যুরিজম’ এর বিকাশে আমাদের একটি আধুনিক আন্তর্জতিক বিমান বন্দর প্রয়োজন।

তিনি বর্তমান সরকারের বিনিয়োগ বান্ধব নীতির সুযোগ কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশের যোগাযোগখাতসহ বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়নে জাপানী উদ্যোক্তাদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

জাপানী রাষ্ট্রদূত এবং জাইকার কান্ট্রি ডাইরেক্টর সরকারের এ সকল উদ্যোগকে অত্যন্ত সময়োপযোগী আখ্যায়িত করেন এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অগ্রগতির প্রশংসা করেন। এ সময় তারা আধুনিক বিমান বন্দর প্রতিষ্ঠাসহ প্রস্তাবিত বিভিন্ন প্রকল্পে বিনিয়োগের আগ্রহ ব্যক্ত করেন।






মন্তব্য চালু নেই