মেইন ম্যেনু

‘বঙ্গবন্ধু থাকলে অনেক আগেই উন্নত রাষ্ট্র হতো বাংলাদেশ’

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, বঙ্গবন্ধু যেভাবে দেশকে এগিয়ে নিচ্ছিলেন, তিনি থাকলে ২০৪১ সাল নয় এর অনেক আগেই দেশ উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হতো। তিনি জাতীয় জীবনে উন্নয়নের সর্বক্ষেত্রে নজির স্থাপন করে গেছেন।

রবিবার বিকালে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন। বঙ্গবন্ধুর ৪১তম শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে এই আলোচনা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ।

এলজিআরডি মন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু রাষ্ট্রনায়কোচিতভাবে স্বল্প সময়ে সবাইকে একত্রিত করে দেশ গড়ার কাজ এগিয়ে নিয়ে গেছেন। স্বল্পতম সময়ে পুলিশ, সেনাবাহিনীসহ সব বাহিনীকে পুনর্গঠিত করে দেশকে এগিয়ে নিচ্ছিলেন। বঙ্গবন্ধু সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়েছিলেন ইঞ্জিনিয়ারদের প্রতি। তিনি বুঝতে পেরেছিলেন, এ বিধ্বস্ত দেশকে পুনর্গঠন করা একমাত্র ইঞ্জিনিয়ারদের দ্বারাই সম্ভব। এ কারণেই স্বল্প সময়ে যুদ্ধবিধ্বস্ত একটি দেশকে পুনর্গঠন করতে সক্ষম হয়েছিলেন তিনি।’

মন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। তাঁর নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর সব স্বপ্ন বাস্তবায়ন হবে।’

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছি গ্রামীণ উন্নয়নের জন্য। প্রতিটি গ্রামই বিদ্যুতায়ন হচ্ছে। আগে গ্রামের লোকজন চাইত টিউবওয়েল ও অন্যান্য সাহায্য। এখন চায় বিদ্যুতের খাম্বা।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রশংসা করে খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘গুলশানে হলি আর্টিজানে জঙ্গিরা যে ২০ জনকে হত্যা করলো এর অধিকাংশই ছিল বিদেশি। অনেকেই মনে করেছিল এ ঘটনার পরই সরকারের পতন হয়ে যাবে। কিন্তু জাতির জনকের কন্যার সন্ত্রাসবিরোধী অবস্থানের কারণে সারা বিশ্বই তার প্রশংসা করেছে।’

ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউটের প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী মুহাম্মদ কবির আহমেদ ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন আইইবির ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী নুরুজ্জামান, প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী নুরুল হুদা, বুয়েটের সাবেক ভিসি ড. নজরুল ইসলাম প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই