মেইন ম্যেনু

‘বঙ্গবন্ধু হত্যায় জিয়া নয়, আ’লীগ নেতারা জড়িত’

‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান জড়িত নয়, আওয়ামী লীগ নেতারা জড়িত’ বলে মন্তব্য করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

ফখরুল বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু হত্যার পর আওয়ামী লীগই ক্ষমতায় ছিল। তদন্ত করলে আসল রহস্য বেরিয়ে আসবে।’

স্বেচ্ছাসেবক দলের ৩৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শুক্রবার সকালে রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে জিয়াউর রহমানের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

দেশের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি সম্পর্কে ফখরুল বলেন, ‘দেশে গণতন্ত্রহীনতা চলছে। জঙ্গিবাদের যে ভয়াবহ একটি দানব দেশকে গ্রাস করতে চলেছে, জঙ্গিবাদকে সুষ্ঠুভাবে মোকাবিলা না করে শুধুমাত্র রাজনৈতিক উদ্দেশে এটাকে ব্যবহার করে রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করার জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে। যার ফলে প্রকৃত অপরাধীরা আড়ালে থেকে যাচ্ছে।’

তিনি বলেন,‘ জঙ্গিবাদকে তারা (সরকার) নির্মূল করতে চায় না। এটাকে (জঙ্গিবাদ) তারা রাজনৈতিক উদ্দেশে ব্যবহার করতে চায়। এটা এখন পরিষ্কার।এজন্য তারা ক্ষমতায় আসার পর থেকে জঙ্গিবাদ ক্রমশই বেড়ে চলেছে।’

জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক মীর সরফত আলী সপু ও সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল বারী বাবুসহ নেতাকর্মীদের নিয়ে বিএনপি মহাসচিব সকালে জিয়াউর রহমানের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। তারা প্রয়াত নেতার আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করেন।

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন এবং স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাদের মধ্যে মুনির হোসেন, সাইফুল ইসলাম পটু, ইয়াসীন আলী, লিটন মাহমুদ ও সাহাবুদ্দিন মুন্না এসময় উপস্থিত ছিলেন।

২২ আগস্ট সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে স্বেচ্ছাসেবক দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভা হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।






মন্তব্য চালু নেই