মেইন ম্যেনু

বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকী আজ

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহধর্মিনী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৮৫তম জন্মবার্ষিকী আজ শনিবার।

এ উপলক্ষে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করবে। আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ড. আব্দুস সেবাহান গোলাপ স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব কর্মসূচি জানানো হয়েছে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে ফজিলাতুন্নেছার রাজনৈতিক ভূমিকার কথা তুলে ধরে বলা হয়, ফরিদপুরের টুঙ্গীপাড়ার অজপাড়াগাঁয়ের সন্তান শেখ মুজিব ধীরে ধীরে শুধুমাত্র বাঙালি জাতির পিতাই নন, বিশ্ব বরেণ্য রাষ্ট্রনায়কে পরিণত হয়েছিলেন। তার পেছনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন তারই সহধর্মিনী বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব।

বঙ্গবন্ধুর পুরো রাজনৈতিক জীবনে ছায়ার মতো লেগে থেকে তার প্রতিটি রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে অফুরান প্রেরণার উৎস হয়েছিলেন বেগম মুজিব। বাঙালি জাতির মুক্তি সনদ ছয় দফা ঘোষণার পর বঙ্গবন্ধু যখন বারে বারে পাকিস্তানিদের হাতে বন্দি জীবন-যাপন করছিলেন, তখন দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা তার কাছে ছুটে আসতেন। তিনি তাদেরকে বঙ্গবন্ধুর বিভিন্ন দিক-নির্দেশনা পৌঁছে দিতেন এবং লড়াই-সংগ্রাম চালিয়ে যাওয়ার জন্য অনুপ্রেরণা যোগাতেন। বিশেষ করে আগরতলা যড়যন্ত্র মামলায় যখন তার প্যারোলে মুক্তি নিয়ে দলের কিছু কুচক্রী স্বাধীনতা সংগ্রামকে বিপন্ন করার ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছিলেন, তখন প্যারোলে মুক্তির বিপক্ষে বেগম মুজিবের দৃঢ়চেতা অবস্থান বাংলার মুক্তি সংগ্রামকে ত্বরান্বিত করেছিল। যা বাংলাদেশের ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে।

এই মহীয়সী নারী ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে সপরিবারে খুনিচক্রের বুলেটের আঘাতে নির্মমভাবে শহীদ হন। জাতির পিতার আমৃত্যু সঙ্গী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৮৫তম জন্মবার্ষিকী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করবে।

এই দিবসটি পালন উপলক্ষে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ নিম্নলিখিত কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে সকাল সাড়ে ৮টায় বনানী কবস্থানে বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব স্মরণে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ, কোরানখানি, মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন। বাদ আছর ২৩ বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে মহিলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে মিলাদ, দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। এ ছাড়াও অন্যান্য কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে সকাল ১১টায় বঙ্গবন্ধু ভবন প্রাঙ্গণে স্বেচ্ছাসেবক লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা। বাদ আছর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে কেন্দ্রীয় কার্যালয় ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের আয়োজনে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল। এতে উপস্থিত থাকবেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম।

একই স্থানে যুবলীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংগঠনের উদ্যোগে আরেক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। এতে উপস্থিত থাকবেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টাপরিষদ সদস্য ও শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম এসব কর্মসূচি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করার জন্য আওয়ামী লীগসহ সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের সকল স্তরের নেতা-কর্মী, সমর্থক, শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।






মন্তব্য চালু নেই