মেইন ম্যেনু

বদলে গেছে দাশিয়ারছড়া

দাশিয়ারছড়া বদলে গেছে। কুড়িগ্রাম জেলার ফুলবাড়ী উপজেলার এই সাবেক ছিটমহলটির নতুন নাম ‘মুজিব-ইন্দিরা দাশিয়ারছড়া ইউনিয়ন’।

কাল বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে এই ইউনিয়ন পরিষদের নতুন ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন। তৈরি হচ্ছে নতুন সড়ক। কাজ চলছে নতুন বিদ্যুৎ-সংযোগ দেওয়ার। নতুন একটি বাণিজ্যিক ব্যাংকের শাখা খোলা হচ্ছে। বিপুল কর্মযজ্ঞ। তা দেখতে আশপাশের কয়েক গ্রামের মানুষ এসে ভিড় করছেন। পরিবেশ দেখে মনে হলো রীতিমতো পর্যটনকেন্দ্রে পরিণত হয়েছে মাত্র মাস চারেক আগেও দেশের মূল ভূখণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন এই নিরিবিলি জনপদটি।

দাশিয়ারছড়ায় একটিই বাজার, কালীরহাট। গত জুন মাসেও এখানে এসে দেখেছি টিনের বেড়া ও ছাউনি দেওয়া একটি চায়ের স্টল, আর বহু পুরোনো এক পাকুড়গাছের তলায় কয়েকটি দোকান। এই নিয়েই কালীরহাট বাজার। মঙ্গলবার সকালে এসে জায়গাটিকে আর চেনাই যাচ্ছিল না। ইটের তৈরি নতুন নতুন দোকান, হোটেল, অফিস, উপ-তথ্যকেন্দ্র, ব্যাংক, মসজিদসহ অর্ধশতাধিক প্রতিষ্ঠানের ঘর উঠে গেছে ইতিমধ্যেই। আরও উঠছে। একপাশে নতুন টিনের বালিকা উচ্চবিদ্যালয়। সাইনবোর্ডে লেখা শেখ হাসিনা বহুমুখী বালিকা উচ্চবিদ্যালয়। লম্বা ঘরটি ঝলমল করছে রোদে।

পাকুড়গাছের তলায় কয়েক ডজন মোটরসাইকেল দাঁড় করিয়ে রাখা। ব্যস্ত হয়ে নানা কাজে ঘোরাঘুরি করছেন লোকজন। গঙ্গাহাট থেকে কালীরহাট পর্যন্ত দুই কিলোমিটার নতুন প্রশস্ত সড়ক তৈরি হচ্ছে। আপাতত ইট বিছানো হচ্ছে। শিগগিরই তার ওপর পড়বে পাথর-পিচের প্রলেপ। সাবেক ছিটমহলে এটিই হতে যাচ্ছে প্রথম পাকা সড়ক। সড়কের দুই পাশে গাছের চারা রোপণ করা হয়েছে।

কালীরহাট বাজারে এক দোকানের সামনে খাতাপত্র নিয়ে বসেছেন পল্লী বিদ্যুতের লোকজন। গ্রামের ভেতরে খুঁটি বসিয়ে লাইন টানার কাজ শেষ হয়েছে। আনুষ্ঠানিকভাবে সংযোগ দেওয়া হবে কাল। প্রধানমন্ত্রী

বিদ্যুৎ-সংযোগ দেওয়ার কাজেরও উদ্বোধন করবেন। কর্তব্যরত ওয়্যারিং পরিদর্শক আবদুস সালাম জানালেন, ফেরতযোগ্য ৬০০ টাকার জামানত ও ২০ টাকার সদস্য ফি নিয়ে সংযোগ দেওয়া হচ্ছে। লোকজন লাইন দিয়ে প্রয়োজনীয় ফরম ও টাকা জমা দিচ্ছেন। প্রথম দিনেই ৮২৯টি পরিবারে সংযোগ দেওয়া হবে বলে জানা গেল।

নতুন সড়কের একপাশে তোড়জোড় চলছে সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের (এসআইবিএল) শাখা খোলার। এটিও দাশিয়ারছড়া তো বটেই, সারা দেশের সাবেক ছিটমহলের প্রথম ব্যাংক। এই ব্যাংকের রংপুর শাখার ব্যবস্থাপক মো. নাজিম উদ্দিন এসেছেন কাজ তদারকির জন্য। তিনি জানালেন, নতুন এই শাখার কার্যক্রম শুরু হবে কাল থেকেই।

ব্যাংকের অদূরেই স্থাপিত হয়েছে সরকারি উপ-তথ্যকেন্দ্র। নতুন সার্ভারের যন্ত্রপাতি বসে গেছে। তবে ইন্টারনেট সংযোগ এখনো চালু হয়নি। এই উপ-তথ্যকেন্দ্রের দায়িত্ব পেয়েছেন দাশিয়ারছড়ারই তরুণ দম্পতি নূর হোসেন-আদিনা সরকার। খুশিতে ঝলমল করছিল তাঁদের মুখ। জানালেন, আপাতত দরখাস্ত বা এ ধরনের ছোটখাটো বিষয় তাঁরা কম্পিউটারে প্রিন্ট করে দিচ্ছেন। স্থানীয় ডেটাবেইস তৈরির কাজ চলছে। সার্ভার চালু হলেই সরকারি সব সেবা দেওয়া যাবে।

তাঁদের কাছে জানা গেল, দাশিয়ারছড়ার আয়তন ৬ দশমিক ৬৫ বর্গকিলোমিটার। জমির পরিমাণ ১ হাজার ৯০০ একর। সর্বশেষ ২০১১ সালের জনগণনা অনুসারে লোকসংখ্যা ৮ হাজার ৮০০। তবে স্থানীয় মানুষের মতে, ১২ হাজারের কাছাকাছি। দেশের সাবেক ছিটমহলগুলোর মধ্যে এটিই সবচেয়ে বড়।

আপাতত ছয়টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হচ্ছে দাশিয়ারছড়ায়। কালীরহাট, রাসমেলা ও কামালপুরে হবে তিনটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এগুলো প্রস্তাবিত। আরও রয়েছে কালীরহাটে শেখ হাসিনা কালীরহাট বহুমুখী উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়, সমন্বয় পাড়া নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয় ও দাশিয়ারছড়া ফজিলাতুন্নেছা দাখিল মাদ্রাসা।
গ্রামের পথে দেখা হলো ব্র্যাকের মাঠপর্যায়ের স্বাস্থ্যকর্মী নাজমুন নাহার ও রেবতী রানীর সঙ্গে। তাঁরা কাজ করেন ফুলবাড়ী সদরে। জানালেন, ব্র্যাক এখানে স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগ দেবে। তাঁরা এলাকা জরিপ করতে এসেছেন।






মন্তব্য চালু নেই